Dreamy Media BD

ইন্ডিয়ান ভিসা চেক করার নিয়ম

ইন্ডিয়ান ভিসা চেক করার নিয়ম

ইন্ডিয়ান ভিসা চেক করার নিয়ম

বাংলাদেশ থেকে প্রতিবছর হাজার হাজার মানুষ বিভিন্ন কারণে ইন্ডিয়ায় যান। আপনারা হয়তো সবাই জানেন বাংলাদেশ থেকে ইন্ডিয়ায় যাওয়ার জন্য যে অনুমতি পত্রের প্রয়োজন হয় তাহলে ভিসা।

কিন্তু ভিসা চেক না করে দেশের বাইরে পাড়ি দেওয়া ঠিক নয়। সেক্ষেত্রে বিভিন্ন ধরনের সমস্যা তৈরি হতে পারে। তাই বাংলাদেশ থেকে ইন্ডিয়ায় যাওয়ার জন্য অবশ্যই পাসপোর্ট নাম্বার দিয়ে ইন্ডিয়ান ভিসা চেক করতে হবে।

অনলাইনে আগে থেকে ভিসা চেক করলে ভিসার সত্যতা কতটুকু তা জানা যায়। এবং ভিসায় যদি কোন ভুল থেকে থাকে তা আগে থেকে ধরা পড়ে। তবে ভিসা চেক করার জন্য সঠিক পদ্ধতি জানা জরুরী। আজকের এই আর্টিকেলে আমরা ইন্ডিয়ান ভিসা চেক করার নিয়ম সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করব। 

পাসপোর্ট নাম্বার দিয়ে ইন্ডিয়ান ভিসা চেক

পাসপোর্ট নাম্বার দিয়ে ইন্ডিয়ান ভিসা চেক করার জন্য প্রবেশ করুন https://www.ivacbd.com/ এই লিংকে। অনলাইন থেকে সরাসরি ইন্ডিয়ান ভিসা চেক করার জন্য প্রয়োজন হবে আপনার ওয়েব ফাইল নাম্বারের। তবে এক্ষেত্রে পাসপোর্ট নাম্বার এর প্রয়োজন হবে না। আপনার ভিসায় যে ওয়েব ফাইল নাম্বার রয়েছে সেই নাম্বার দিয়ে ইন্ডিয়ান ভিসা চেক করার নিয়ম গুলো ধাপে ধাপে আলোচনা করা হলো:

ধাপ ১: ওয়েবসাইট ভিজিট করুন

উপরে বর্ণিত লিংকে প্রবেশ করলে আপনার সামনে একটি ওয়েবসাইট ওপেন হবে। আপনি এই ওয়েবসাইটে ক্লিক করলে বাম পাশে বিভিন্ন ধরনের মেনু চলে আসবে। ওই মেনুগুলোর মধ্য থেকে “ভিসা আবেদন ট্রাক”অপশন এ ক্লিক করুন।

ধাপ ২: আবেদন ট্রাক করুন:

এই ধাপে আপনাকে আবেদন ট্রাক করতে অনুরোধ করা হবে। সে ক্ষেত্রে “আপনার আবেদন ট্রাক এর জন্য ক্লিক করুন” এই অপশনে প্রবেশ করুন। তারপর আপনাকে কনভার্ট করে অন্য আরেকটি ওয়েবসাইটে নিয়ে যাওয়া হবে।

ধাপ ৩: যে ধরনের ভিসা করতে চান সেই ভিসা টাইপ সিলেক্ট করুন

আগেই বলেছিলাম এই পর্যায়ে আপনাকে আরেকটি নতুন ওয়েবসাইটে নিয়ে যাওয়া হবে। এই ওয়েবসাইটের নাম হল passtrack.net. এখানে দুই ধরনের ভিসা টাইপ উল্লেখ করা থাকবে। সেগুলোর নাম হল:

ইন্ডিয়ান ভিসা চেক করার নিয়ম
ইন্ডিয়ান ভিসা চেক করার নিয়ম
  • Regular Visa Application
  • Port Endorsement, R.A.P./P.A.P.

আমরা সবাই রেগুলার ভিসা অ্যাপ্লিকেশন করার মাধ্যমে ইন্ডিয়া প্রবেশ করে থাকি। তাই এই দুটো অপশন থেকে আপনাকে রেগুলার ভিসা অ্যাপ্লিকেশন অপশনে ক্লিক করতে হবে।

ধাপ ৪: ভীসা নম্বর প্রবেশ করান

আপনার ভিসার যে ফাইল নম্বর রয়েছে এই পর্যায়ে সেই খালি ঘরটি পূরণ করতে হবে। এবং একটি ক্যাপচা কোড পূরণ করতে বলা হবে। অনুগ্রহ করে ক্যাপচা করতে সঠিকভাবে প্রবেশ করান।

আগের মত এই পেজেও দুটি অপশন আপনার সামনে আসবে। সেগুলো হলো:

  • Please type above code,
  •  Web File number.

সবার উপরে যে অপশনটি আসবে সেটি মূলত একটি ক্যাপচা কোড। এখানে ক্যাপচা কোড বড় হাতের অক্ষরে উল্লেখ করা থাকবে। সেখান থেকে আপনাকে কপি করে এই ঘর পূরণ করতে হবে।

দ্বিতীয় অপশনে যে ওয়েব ফাইল নাম্বারের উল্লেখ আছে একটি মূলত আপনার ভিসা শনাক্তকরণের নাম্বার। আপনার ভিসা ফর্মে একটা কিউআর কোড উল্লেখ করা রয়েছে। সেই কিউ আর কোড এর নিচে ভিসার ওয়েব ফাইল নাম্বার দেখতে পাবেন। এই ধাপে ওয়েব ফাইল নাম্বারটি সঠিকভাবে প্রবেশ করান। এবং “সাবমিট” বাটনে ক্লিক করুন।

ধাপ ৫: ভিসা স্ট্যাটাস চেক করুন

ইন্ডিয়ান ভিসা চেক করার নিয়ম
ইন্ডিয়ান ভিসা চেক করার নিয়ম

উপরে বর্ণিত চিত্রের মত এই পর্যায়ে আপনার ভিসা স্টাটাস আপনার সামনে চলে আসবে। আপনার ভিসা টি যদি ভিসা অফিস থেকে এপ্রুভ হয়ে থাকে তাহলে ডানপাশে “Done” চিহ্নটি দেখতে পাবেন। এবং যদি আপনার বিষয়টি এপ্রুভ না হয়ে থাকে তাহলে অন্য লেখা ওইখানে যোগ হবে।

আশা করি আপনারা পাসপোর্ট নাম্বার দিয়ে ইন্ডিয়ান ভিসা চেক করার নিয়ম বিস্তারিতভাবে জানতে পেরেছেন।

ইন্ডিয়ান ভিসা কত টাকা লাগে

ইন্ডিয়ান ভিসা আবেদন করার জন্য সর্বসাকুল্যে খরচ পড়ে ৮০০ টাকার মত। তবে ভিসার ধরন অনুযায়ী ভিসা প্রসেসিং করতে খরচ ভিন্ন হয়ে থাকে। ৩০ দিনের জন্য ইন্ডিয়ান মেডিকেল ভিসা করতে খরচ পড়ে ১৫০০ রুপি। 

তবে আপনি যদি খুব তাড়াতাড়ি এই ভিসা নিতে চান তাহলে খরচ কিছুটা বেশি পড়বে। টুরিস্ট ভিসা জন্য খরচ হয় ৬০০ টাকার মত। এবং এই টুরিস্ট ভিসায় বিভিন্ন ধরনের প্যাকেজ পাওয়া যায়। আপনি আপনার সামর্থ্য অনুযায়ী প্যাকেজ কিনে নিতে পারেন।

ইন্ডিয়ান বিজনেস ভিসার জন্য খরচ পড়ে ৭০০ টাকা। স্টুডেন্ট ভিসার জন্য খরচ করতে হয় ৬০০ থেকে বড়জোর ৭০০ টাকা।

ইন্ডিয়ান ভিসা প্রসেসিং

ইন্ডিয়ান ভিসা প্রসেসিং করার জন্য প্রবেশ করুন https://indianvisa-bangladesh.nic.in/visa/index.html এই লিংকে। এই লিংকে প্রবেশ করার পর আপনার সামনে একটি ওয়েবসাইট ওপেন হবে। এই ওয়েবসাইটে বিভিন্ন তথ্য জানতে চাওয়া হবে। যেসব গুরুত্বপূর্ণ তথ্য জানতে চাওয়া হবে তা নির্ভয়ে দেখানো হলো:

 

  • আপনার পাসপোর্ট অথবা পাসপোর্ট নাম্বার।
  • তিন মাসের মধ্যে তোলা ছবির সফট কপি।
  • প্রিন্টকৃত আবেদন পত্র ফরম।
  • জাতীয় পরিচয় পত্র অথবা জন্ম নিবন্ধন এর ফটোকপি।
  • বিদ্যুৎ গ্যাস ইত্যাদির ইউটিলিটির বিল।
  • আপনি যে পেশায় নিযুক্ত আছেন সেই  পেশায় প্রমাণ পত্র।
  • আপনার ব্যক্তিগত ব্যাংক স্টেটমেন্ট এর ফটোকপি।
  • আপনার যদি ইন্ডিয়ান ভিসা থেকে থাকে তাহলে তার ফটোকপি।
  • আপনার যদি পুরান পাসপোর্ট থেকে থাকে তাহলে সেই পাসপোর্ট অবশ্যই জমা দিতে হবে।

সবকিছুর ফটোকপি জমা দিলেও সঙ্গে মেইন কপি নিয়ে যাবেন। কারণ এইসব গুরুত্বপূর্ণ তথ্যের আসল কপি তারা দেখতে চাইতে পারে।

ইন্ডিয়ান ভিসা পেতে কত দিন লাগে ২০২৩

ইন্ডিয়ার ভিসার জন্য আবেদন করার পর ভিসা হাতে পেতে বেশি দিন সময় লাগে না। তবে সেক্ষেত্রে আপনাকে নিশ্চিত করতে হবে আপনার সকল কাগজপত্র ঠিক আছে কিনা। সব ধরনের কাগজপত্র ঠিক থাকলে ১৫ দিনের মধ্যে হাতে পাবেন। যারা ইন্ডিয়ান ভিসার জন্য ১৫ দিন আগে আবেদন করেছেন কিন্তু ভিসা এখনো হাতে পাননি তারা ধরে রাখতে পারেন আপনাদের ভিসা প্রসেসিং করা সঠিক হয়নি।

আপনি ইন্ডিয়ান ভিসা আবেদন যদি ১৫ দিন আগে করে থাকেন এবং ভিসা হাতে না পান অথবা আপনার পাসপোর্ট এর মেয়াদ যদি ফুরিয়ে যায় তাহলে আপনাকে অবশ্যই পাসপোর্ট অফিসে যোগাযোগ করতে হবে। এবং যেখান থেকে আপনি ভিসার জন্য আবেদন করেছিলেন সেই অফিস থেকেই আপনাকে এই সমস্যার সমাধান করে দেওয়া হবে।

ভারতীয় ভিসা আপডেট

আপনি যদি ভারতীয় ভিসার জন্য আবেদন করে থাকেন তাহলে প্রতিনিয়ত ভারতীয় ভিসা আপডেট এর উপর নজর রাখুন। কারণ ভিসা এপ্লিকেশন সেন্টার প্রতিনিয়ত তাদের বিভিন্ন ভিতর পরিবর্তন নিয়ে আসে। ইন্ডিয়ান টুরিস্ট ভিসার ক্ষেত্রেও তারা বিভিন্ন রকম পরিবর্তন প্রতিনিয়তই নিয়ে আসে। চলুন দেখে আসি ভারতীয় ভিসা আপডেট গুলো কি কি:

  • নতুন টুরিস্ট ভিসা আপডেট অনুযায়ী ভারতে সকল ধরনের স্যাটেলাইট মোবাইল ফোন নেওয়া নিষিদ্ধ।
  • বর্তমানে সকল ধরনের ট্যুরিস্ট ভিসার নিয়ম কানুন শিথিলকরণ করা হয়েছে।

তাই আপনি যদি টুরিস্ট ভিসার জন্য আবেদন করেন তাহলে অবশ্যই আপনাকে এই ধরনের তথ্যগুলো জানতে হবে। টুরিস্ট ভিসা ছাড়া অন্য যেকোনো ইন্ডিয়ান ভিসা করার ক্ষেত্রে অবশ্যই ভারতীয় ভিসা আপডেট সম্পর্কে অবগত হতে হবে।

শেষ কথা

আমরা যখন এক দেশ থেকে অন্য দেশে প্রবেশ করি তখন অনুমতি পত্রের প্রয়োজন হয়। এই অনুমতি পত্রের নামই হল ভিসা। আপনি এক দেশ থেকে অন্য দেশে ভ্রমণ করার আগে অবশ্যই অনলাইনের মাধ্যমে ভিসা চেক করে নিবেন। কারণ বিভিন্ন সময়ে ভিসাতে বিভিন্ন ধরনের সমস্যা দেখা দেয়। যা পরবর্তীতে বিভিন্ন ধরনের সমস্যা সৃষ্টি করে থাকে।

আমাদের প্রতিবেশী দেশ ভারত হলেও ভারতে প্রবেশ করার জন্য ভিসার প্রয়োজনীয়তা রয়েছে। তাই ভারত ভ্রমণের উদ্দেশ্যে রওনা দেওয়ার আগে অনলাইন এর মাধ্যমে আপনার ভিসা চেক করে নেওয়া জরুরি। এতে আপনার ভ্রমণ হবে নিরাপদ। আজকের এই আর্টিকেলে আমরা ইন্ডিয়ান ভিসা চেক করার নিয়ম সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করার চেষ্টা করেছি। সম্পূর্ণ আর্টিকেলটি পরলে আশা করি আপনারা উপকৃত হবেন।

Also Read: ট্রেড লাইসেন্স করার নিয়ম।

Related Post

খুশির স্ট্যাটাস

200+ স্টাইলিশ খুশির স্ট্যাটাস | হাসি নিয়ে ক্যাপশন

খুশির স্ট্যাটাস | হাসি নিয়ে ক্যাপশন জীবনের সুন্দর খুশির মুহূর্ত আমরা সবাই বাঁধাই করে রাখতে চাই। আর এই খুশির মুহূর্তকে ধরে রাখার সবচেয়ে সহজ উপায়

Read More »
❤love status bangla | ভালোবাসার ছন্দ | রোমান্টিক ছন্দ | প্রেম ছন্দ স্ট্যাটাস❤

স্টাইলিশ ভালোবাসার ছন্দ | রোমান্টিক ছন্দ | Love Status Bangla

❤❤ভালোবাসার ছন্দ | ভালোবাসার ছন্দ রোমান্টিক | ভালোবাসার ছন্দ স্ট্যাটাস❤❤ ভালোবাসা হলো এক অন্যরকম অনুভূতির নাম, যা শুধুমাত্র কাউকে ভালবাসলেই অনুভব করা যায়। আমরা বিভিন্নভাবে

Read More »
মন খারাপের স্ট্যাটাস

মন খারাপের স্ট্যাটাস, উক্তি, ছন্দ, ক্যাপশন, কিছু কথা ও লেখা

মন খারাপের স্ট্যাটাস মন খারাপ – এই কষ্টের অনুভূতি কার না হয়? সবারই কখনো না কখনো সবারই মন খারাপ হয়। জীবনের ছোটোখাটো অঘটন থেকে শুরু

Read More »
রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের প্রেমের উক্তি

রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের প্রেমের উক্তি

রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের প্রেমের উক্তি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরকে বলা হয় বিশ্বকবি। তিনি ছিলেন একজন বিচক্ষণ ও গুনী লেখক। প্রেম চিরন্তন এবং সত্য। রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর বাঙালীর মনে প্রেমের

Read More »
ব্রেকআপ স্ট্যাটাস বাংলা

ব্রেকআপ স্ট্যাটাস বাংলা | Breakup Status Bangla

ব্রেকআপ স্ট্যাটাস বাংলা আপনি কি আপনার প্রিয়জনের সাথে সম্পর্ক থেকে বের হয়ে এসেছেন? আর সেটা আপনি কোন ব্রেকআপ স্ট্যাটাস বাংলা মাধ্যমে বোঝাতে চাচ্ছেন। তাহলে আপনি

Read More »

Leave a Comment

Table of Contents