Dreamy Media BD

জন্ম তারিখ দিয়ে জন্ম নিবন্ধন যাচাই

জন্ম তারিখ দিয়ে জন্ম নিবন্ধন যাচাই

জন্ম তারিখ দিয়ে জন্ম নিবন্ধন যাচাই

জন্ম তারিখ দিয়ে জন্ম নিবন্ধন যাচাই , খুব সহজ। ঘরে বসে মাত্র ৫ মিনিটে জন্ম তারিখ দিয়ে জন্ম নিবন্ধন যাচাই করতে এই আর্টিকেল টি শেষ পর্যন্ত পড়ুন।  আপনার মোবাইল বা ল্যাপটপ / পিসি থেকে ঝামেলা ছাড়াই বিনামূল্যে , শুধুমাত্র আপনার জন্ম নিবন্ধন নম্বর এবং জন্ম তারিখ দিয়ে ,জন্ম নিবন্ধন যাচাই কারা সম্ভব।  

 

জন্ম তারিখ দিয়ে জন্ম নিবন্ধন যাচাই 

কিভাবে আপনার  জন্ম তারিখ এবং জন্ম নিবন্ধন নম্বর দিয়ে অনলাইনে জন্ম নিবন্ধন তথ্য যাচাই করবেন তা ধাপে ধাপে স্বচিত্র বর্ণনা করা হলো:

জন্ম নিবন্ধন যাচাই কেন প্রয়োজন? 

জন্মের পর একটি শিশুর প্রথম রাষ্ট্রীয় স্বীকৃতি তার জন্ম নিবন্ধন সনদ।  পূর্ণবয়স্ক হবার আগে ভোটার আইডি কার্ড না পাওয়া পর্যন্ত এটির সাহায্য শিশু তার রাষ্ট্রীয় সেবাগুলি পেয়ে থাকে।  

  • শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ভর্তি হতে।  
  • সরকারি উপবৃত্তি পেতে।  
  • শিশুর বিদেশ ভ্রমণে।  
  • সরকারি প্রতিষ্ঠান থেকে সেবা পেতে , যেমন হাসপাতাল।  

ইত্যাদি প্রয়োজনীয় কাজে জন্ম নিবন্ধই প্রয়োজন হয়।  তাই , জন্ম নিবন্ধনের আবেদনের পর যাচাই করা উচিত।  

প্রথম ধাপঃ ওয়েবসাইটে প্রবেস 

বাংলাদেশ সরকারের জন্ম ও মৃত্যু নিবন্ধনের জন্য একটি নির্ধারিত ওয়েবসাইট আছে , ওয়েবসাইট লিংক: https://everify.bdris.gov.bd । যে কোন ব্রাউজার থেকে এই লিংকে প্রবেশ করতে হবে , তাহলে নিচের চিত্রের মতো একটি পেজ পাওয়া যাবে।  

জন্ম তারিখ দিয়ে জন্ম নিবন্ধন যাচাই

দ্বিতীয় ধাপঃ জন্মতারিখ ও নিবন্ধন নম্বর প্রদান 

চিত্রের মত পাওয়া অনালাইন ফরমে প্রথমে ১৭ সংখ্যার জন্ম নিবন্ধন নম্বরটি প্রবেশ করতে হবে (অনেকেরই ১৭ ডিজিটের নম্বর নাও থাকতে পারে, তারা কিভাবে যাচাই করবেন, তা আর্টিকেলের শেষের অংশে আলোচনা করা হয়েছে)। অনেকেই এখানে ভুল করে বাংলায় লিখেন, মনে রাখবেন ১৭ সংখ্যার নম্বরটি ইংরেজিতে লিখতে হবে।  

তারপর, জন্ম তারিখ ঘরে ক্লিক করলে এটি ডিজিটাল ক্যালেন্ডার প্রিভিউ হবে , এখানে জন্মতারিখটি নির্বাচন করতে হবে।  এক্ষেত্রে তারিখের ফরমেট হবে বছর – মাস – দিন বা YYYY -MM-DD। 

সর্বশেষ, নিরাপত্তার জন্য দেওয়া  ক্যাপচাটি পুরন করতে হবে । বেশিরভাগ ক্ষেত্রে দুটি সংখ্যার যোগফল বের করতে হয় এরপর নিচের সার্চ বাটনে ক্লিক করতে হবে। 

আপনার দেওয়া সকল তথ্য ঠিক থাকলে উপরের চিত্রের মতো একটি পেজ আসবে।  যার উপরে লেখা আছে , ‘বার্থ রেজিস্ট্রেশন রেকর্ড ভেরিফিকেশন ‘ এবং নিচে যার নিবন্ধন যাচাই করা হচ্ছে তার নাম , লিঙ্গ , জন্মতারিখ , পিত মাতার নাম ও রেজিস্ট্রেশন অফিস ইত্যাদি তথ্যগুলি থাকবে। 

জন্ম তারিখ দিয়ে জন্ম নিবন্ধন যাচাই

তথ্যাগুলি ভালোভাবে যাচাই করে নিতে হবে, কেননা এখানে কোন ভুল থাকলে পরবর্তীতে জাতীয় ভোটার আইডি কার্ড বা স্মার্ট কার্ডেও সেই ভুল তথ্য আসবে।  যেগুলি সংশোধন করা অত্তান্ত জটিল ও সময়সাপেক্ষ কাজ।  

 ১৬ ডিজিটের সংখ্যা দিয়ে জন্ম নিবন্ধন যাচাই

উপরে আমরা দেখলাম, কিভাবে ১৭ ডিজিটের নম্বর ও জন্মতারিখ দিয়ে জন্ম নিবন্ধন যাচাই করা যায়।  কিভাবে আগের ১৬ ডিজিটের নম্বর দিয়ে জন্ম নিবন্ধন যাচাই করতে পারবেন:

পূর্বে জন্ম নিবন্ধনের তথ্যগুলি হাতে লেখা ছিল যেখানে ১৩ অথবা ১৬ ডিজিট এর জন্ম নিবন্ধন নম্বর থাকে।  পরবর্তীতে , দেশের জনসংখ্যা বৃদ্ধির কথা মাথায় রেখে মেনুয়াল তথ্যগুলি অনলাইন ডেটাবেসে রাখার সময় ১৭ ডিজিটে রূপান্তর করা হয়।  যেহেতু https://everify.bdris.gov.bd/  ওয়েবসাইটে শুধুমাত্র ১৭ ডিজিট সাপোর্ট করে।  তাই , আপনি খুব সহজে একে ১৭ ডিজিটে রূপান্তর করতে পারেন।  

জন্ম নিবন্ধন ১৬ ডিজিট থেকে ১৭ ডিজিট করার নিয়ম

আপনার ১৬ ডিজিটের জন্ম নিবন্ধন নাম্বারের শেষের দিক থেকে ৫ম সংখ্যাটির আগে একটা (0) বসিয়ে দিতে হবে।  

এবার এই নতুন ১৭ ডিজিটের নম্বর দিয়ে উপরের দেওয়া প্রক্রিয়া অনুসর করে, আপনার “জন্ম নিবন্ধন অনলাইন যাচাই” করতে পারেন। 

অনলাইন কপি ডাউনলোড

জন্ম তারিখ দিয়ে জন্ম নিবন্ধন যাচাই

অনলাইন জন্ম নিবন্ধন কপি ডাউনলোড এর কোন উপায় নাই।  তাই আপনি কোন ভালো স্ক্রিন শর্ট টুলস দিয়ে ছবি নিয়ে প্রিন্ট করতে পারেন বা ডিভাইসে সেইভ করতে পারেন।  

অথবা, ল্যাপটপ বা কম্পিউটার থেকে (ctrl +P)  দিয়ে Print to PDF বাছাই করে , আপনার কপিটি প্রিন্ট করে সংরক্ষণ করুন। 

 

জন্ম নিবন্ধন যাচাই অনলাইন কপিতে যদি কোন ভুল খুজে পান, তাহলে নিচের প্রক্রিয়া অনুসরন করতে হবেঃ  

জন্ম নিবন্ধন সংশোধন কিভাবে করবো?

আপনার জন্ম নিবন্ধনে কোন ভুল থাকলে , অনলাইনে আবেদন করে মাত্র ৩ থেকে ৭ কর্মদিবসের মধ্যে সংশোধন করতে পারবেন।  

প্রথম ধাপ,  https://bdris.gov.bd/br/correction   এই লিংকে যে কোন ব্রাউজার থেকে প্রবেশ করতে হবে।  

দ্বিতীয় ধাপ, এখানে আপনার জন্ম নিবন্ধন নম্বর দিয়ে সার্চ করতে হবে।  

তৃতীয় ধাপ,   আপনি যে ইউনিয়ন পরিষদ বা পৌরসভার অধীনে জন্ম নিবন্ধন সনদ করেছেন সেই ঠিকানা নির্বাচন করতে হবে।  ধাপে ধাপে দেশ < বিভাগ < জেলা < সিটি কর্পোরেশন/ উপজেলা / ক্যান্টর্মেন্ট < পৌরসভা / ইউনিয়ন < অফিস নির্বাচন করবেন।  

চতুর্থ ধাপ, এখানে একটি অনলাইন সংশোধন ফর্ম পাবেন এখানে থেকে , সবুজ বাটনে ক্লিক করে , যে তথ্য নির্বাচন করতে চান সেটা নির্বাচন করবে।  তারপর , ” চাহিত শুদ্ধ তথ্যটি ” সঠিকভাবে দিবেন।  

মনে রাখবেন , সর্বোচ্চ চারবার সংশোধন করতে পারবেন।  

পঞ্চম ধাপ , এখানে কেন সংশোধন করেছে তা  ”ভুলভাবে লিপিবদ্ধ হয়েছে” বলে নির্বাচন করবেন।  

ষষ্ঠ ধাপ, এখানে আপনার  জন্ম নিবন্ধন সনদের তথ্য অনুযায়ী জন্ম স্থান, স্থায়ী ও বর্তমান ঠিকানার জেলা-উপজেলা সিলেক্ট করতে হবে।  

সপ্তম ধাপ, এখানে যে যে তথ্য সংশোধনের জন্য আবেদন করেছে সেগুলির প্রমাণক কাগপত্র উপলোড করতে হবে।  এবং নিজের জন্য করলে , “নিজ” সিলেক্ট করুন, অথবা ব্যক্তির পিতা-মাতা হলে পিতা-মাতা ইত্যাদি সিলেক্ট করুন।  অন্যথায় , আইনগত অভিভাবক হলে অভিভাবক সিলেক্ট করুন।তবে নিজ/ পিতা বা মাতা ছাড়া অন্য কেউ আবেদন করলে তাদের জন্ম নিবন্ধন নম্বর ও ভোটার আইডি নম্বর দিতে হবে। তারপর প্ৰয়োজনীয় ডকুমেন্টস গুলি উপলোড করে দিবেন।  

অষ্টম ধাপ,  পেমেন্ট অপশনে “ফি আদায়” সিলেক্ট করুন। পুনরায় তথ্যগুলো চেক করে সাবমিট বাটনে ক্লিক করে আপনার আবেদনটি জমা দিন।  এরপর আপনি একটি অ্যাপ্লিকেশন আইডি ও রেফারেন্স নম্বর পাবেন এগুলো সংগ্রহ করে রাখুন। এবং আবেদনপত্রটি প্রিন্ট করে সংশ্লিষ্ট ইউনিয়ন পরিষদ/ পৌরসভা/ সিটি কর্পোরেশন অফিসে জমা দিন।

https://bdris.gov.bd/br/application/status   থেকে আবেদনের সর্বশেষ অবস্থা জানতে পারবেন। 

জন্ম তারিখ দিয়ে জন্ম নিবন্ধন যাচাই | ধারাবাহিক প্রশ্ন – FAQ

 এখানে জন্ম নিবন্ধন অনলাইন যাচাই করার সম্পর্কিত অনলাইনে সর্বাধিক জিজ্ঞেসিত কিছু প্রশ্নের উত্তর দেওয়া হলো:

অনলাইন জন্ম নিবন্ধন যাচাই লিংকটি কি?

সরকারের ডিজিটাল সার্ভার থেকে জন্ম নিবন্ধন যাচাই সহ অন্নান্য সেবা bdris ওয়েবসাইট থেকে পাওয়া যায়।  

ওয়েবসাইট লিংক: https://everify.bdris.gov.bd 

 জন্ম নিবন্ধন সনদ যাচাই করার ফি কত?

জন্ম তারিখ দিয়ে জন্ম নিবন্ধন যাচাই করতে কোন প্রকার অর্থের প্রয়োজন নেই, এটি সম্পূর্ণ বিনামূল্য। 

জন্ম নিবন্ধন অনলাইনে আছে কিনা যাচাই করব কিভাবে?

আপনার জন্মনিবন্ধনটি অনলাইনে আছে কিনা , সেটা যাচাই করতে আপনাকে , জন্ম নিবন্ধনের সরকারি ওয়েবসাইট এ যেতে হবে (লিংক উপরে দেওয়া আছে )।  সেখান থেকে আপনার প্রয়োজনীয় তথ্য যেমন , নিবন্ধন আইডি ও জন্ম তারিখ দিয়ে সার্চ দিতে হবে।  তাহলে আপনার তথ্য যাচাই করতে পারবেন।

 অনলাইনে জন্ম নিবন্ধন যাচাই করে, না পেলে কি করবো?

আপনার জন্ম নিবন্ধনের কোনো তথ্য অনলাইন সার্ভারে খুঁজে না পাওয়া গেলে বুঝতে হবে আপনার জন্ম নিবন্ধন অনলাইনে নেই। সেক্ষেত্রে, আপনি খুব সহজ কিছু অনলাইনে জন্ম নিবন্ধন শংসাপত্রের জন্য আবেদন করতে পারেন। অথবা , আপনার নিজ এলাকার ইউনিয়ন পরিষদ বা পৌরসভা বা সিটি কর্পোরেশন কাউন্সিলর অফিসে সরাসরি গিয়ে ফর্ম সংগ্রহ করে জমা দিয়ে আবেদন করতে পারবেন।

 জন্ম নিবন্ধন কত দিনের মধ্যে করতে হয়?

একটি শিশু জন্মের ৪৫ দিনের মধ্যে জন্ম নিবন্ধন করে ফেলা উচিত। অনলাইনে জন্ম নিবন্ধনের পিডিএফ ফরমটি পাওয়া যায়।  

also Read: সাত  দিনে মোটা হওয়ার উপায়

Related Post

খুশির স্ট্যাটাস

200+ স্টাইলিশ খুশির স্ট্যাটাস | হাসি নিয়ে ক্যাপশন

খুশির স্ট্যাটাস | হাসি নিয়ে ক্যাপশন জীবনের সুন্দর খুশির মুহূর্ত আমরা সবাই বাঁধাই করে রাখতে চাই। আর এই খুশির মুহূর্তকে ধরে রাখার সবচেয়ে সহজ উপায়

Read More »
❤love status bangla | ভালোবাসার ছন্দ | রোমান্টিক ছন্দ | প্রেম ছন্দ স্ট্যাটাস❤

স্টাইলিশ ভালোবাসার ছন্দ | রোমান্টিক ছন্দ | Love Status Bangla

❤❤ভালোবাসার ছন্দ | ভালোবাসার ছন্দ রোমান্টিক | ভালোবাসার ছন্দ স্ট্যাটাস❤❤ ভালোবাসা হলো এক অন্যরকম অনুভূতির নাম, যা শুধুমাত্র কাউকে ভালবাসলেই অনুভব করা যায়। আমরা বিভিন্নভাবে

Read More »
মন খারাপের স্ট্যাটাস

মন খারাপের স্ট্যাটাস, উক্তি, ছন্দ, ক্যাপশন, কিছু কথা ও লেখা

মন খারাপের স্ট্যাটাস মন খারাপ – এই কষ্টের অনুভূতি কার না হয়? সবারই কখনো না কখনো সবারই মন খারাপ হয়। জীবনের ছোটোখাটো অঘটন থেকে শুরু

Read More »
রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের প্রেমের উক্তি

রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের প্রেমের উক্তি

রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের প্রেমের উক্তি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরকে বলা হয় বিশ্বকবি। তিনি ছিলেন একজন বিচক্ষণ ও গুনী লেখক। প্রেম চিরন্তন এবং সত্য। রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর বাঙালীর মনে প্রেমের

Read More »
ব্রেকআপ স্ট্যাটাস বাংলা

ব্রেকআপ স্ট্যাটাস বাংলা | Breakup Status Bangla

ব্রেকআপ স্ট্যাটাস বাংলা আপনি কি আপনার প্রিয়জনের সাথে সম্পর্ক থেকে বের হয়ে এসেছেন? আর সেটা আপনি কোন ব্রেকআপ স্ট্যাটাস বাংলা মাধ্যমে বোঝাতে চাচ্ছেন। তাহলে আপনি

Read More »

Leave a Comment

Table of Contents