Dreamy Media BD

জন্ডিস হলে কি ওষুধ খাব

জন্ডিস হলে কি ওষুধ খাব

জন্ডিস হলে কি ওষুধ খাব

জন্ডিস রোগটির সাথে আমরা কম বেশি সবাই পরিচিত। সবারই জীবন এর কোনো না কোনো সময় জন্ডিস হয়ে থাকে। তবে অনেকেই জানেনা জন্ডিস কোন রোগ নয় জন্ডিস মূলত রোগের একটি লক্ষণ। আপনার যদি বার বার জন্ডিস হয় তাহলে বুঝে নেবেন বড় কোন রোগ আপনার জন্য অপেক্ষা করছে। জন্ডিস বলতে সাধারণত লিভারের প্রদাহজনিত জন্ডিসকেই বোঝানো হয়।

জন্ডিস হলে কি ওষুধ খাব

ভাইরাস থেকে শুরু করে নানা ধরনের ওষুধ, অ্যালকোহল ইত্যাদি কারণে লিভারে প্রদাহ হতে পারে। আমাদের দেশে লিভার প্রদাহের প্রধান কারণ হেপাটাইটিস ই, এ এবং বি ভাইরাস। এর মধ্যে প্রথম দুটি পানি ও খাদ্যবাহিত আর তৃতীয়টি ছড়ায় মূলত রক্তের মাধ্যমে। হেপাটাইটিস এ ভাইরাস প্রধানত শিশুদের জন্ডিসের কারণ, তবে যেকোনো বয়সের মানুষই হেপাটাইটিস ই ও বি ভাইরাসে আক্রান্ত হতে পারে।সাধারণত একজন স্বাভাবিক মানুষের শরীরে বিলিরুবিনের ঘনত্ব ১.২ এমজি/ডিএল এর নিচে থাকে। 

আর যখনই এর থেকে উপরে উঠবে তখনই শরীরে জন্ডিসের উপসর্গগুলো প্রকাশ পায়। অনেকেই জানেনা জন্ডিস হলে কি ওষুধ খাবে বা জন্ডিসের নির্দিষ্ট চিকিৎসা কি। তাই আজকের আর্টিকেলে আমরা জানবো জন্ডিস হলে কি ওষুধ খাব। তাই চলুন দেরি না করে এখনই আর্টিকেলটি শুরু করা যাক:

 

জন্ডিসের কারণ

জন্ডিসের আসল কারণ হচ্ছে যকৃতের যেকোনো ধরনের সমস্যা। আমরা যা খাই তা সবকিছু আমাদের যকৃতিতে প্রসেসিং হয়।নানা কারণে যকৃত রোগে আক্রান্ত হয়ে। হেপাটাইটিস যকৃৎ প্রদাহ তৈরি করে। জন্ডিসের মেইন কারণ হচ্ছে এই হেপাটাইটিস ভাইরাসগুলো। এছাড়াও অতিরিক্ত মধ্যপান যারা করে তাদের লিভারে ব্যাপক ক্ষতি হয় এর কারনেও জন্ডিস হয়ে থাকে। 

এছাড়াও একটি ডিজিজ আছে যা হল, autoimmune liver disease এর কারণে বংশগত জন্ডিস হতে দেখা যায়। বংশগত কারণে যাদের লিভারে ক্যান্সারের বীজ রয়েছে তাদের প্রায়ই জন্ডিসে ভুগতে দেখা যায়। এছাড়াও কিছু ওষুধের সাইড ইফেক্ট হিসেবে জন্ডিস হয়ে থাকে।

 hemoglobin e disease এর কারণে পিত্তে কিংবা পিত্ত নলিতে স্টোন তৈরি হয় এটাও জন্ডিসের অন্যতম কারণ । টিউমার ও ক্যান্সারের কারণেও জন্ডিস হতে পারে। দৈনন্দিন জীবনযাপনে অনিয়ম এর কারণেও জন্ডিস হয়। রক্তে যখন বিলিরুবিনের পরিমাণ অনেক বেড়ে যায় তখন জন্ডিস হয়ে থাকে। 

জন্ডিসের লক্ষণ

প্রতিটি রোগের কিছু না কিছু নির্দিষ্ট লক্ষণ থাকে। ঠিক তেমনি জন্ডিস রোগের ও কিছু লক্ষণ রয়েছে। এই লক্ষণগুলো প্রকাশ করার সাথে সাথেই বুঝতে পারবেন রোগী জন্ডিসে আক্রান্ত। তাহলে চলুন জেনে নিই জন্ডিস রোগের লক্ষণ গুলো সম্পর্কে,

১)জন্ডিসে আক্রান্ত রোগীর চোখ এবং ত্বক হলদে ভাব হয় । 

২) প্রসাবের রং গারো হলুদ বা কমলা রঙের হয় ।

৩) মলের রং হালকা বা সাদা হয় । 

৪)পেটব্যথা অস্বস্তিকর সৃষ্টি হয় ।

৫)বমি বমি ভাব হয়।

৬)ক্ষুদা হ্রাস বা ক্ষুদা  লাগে না।

৭) সারাদিন ক্লান্তি ক্লান্তি ভাব অনুভব করা ।

৮)ওজন কমে যায়

৯)অনিদ্রা

১০)চুলকানি

১১)জ্বর জ্বর অনুভূতি হওয়া ও কাঁপুনি দিয়ে জ্বর আসা

জন্ডিস হলে করণীয় 

১)নিরাপদ যৌনতা অনুসরণ  করতে হবে ।

২) পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন খাবার খেতে হবে।

৩) প্রচুর পরিমাণে পানি পান করতে হবে।

৪) টিকা দিতে হবে ।

৫)হেপাটাইছিস বি  নিয়ন্ত্রণের জন্য ডাক্তারের পরামর্শ গ্রহণ করুন

জন্ডিস হলে যা খাবেন

১)প্রোটিন: খাদ্যতালিকায় প্রতিদিন মুরগির মাংস, মাছ, ডাল পরিমাণমতো থাকতে হবে।তা না হলে রোগী দুর্বল হয়ে পড়বে। অনেকে মনে করেন, জন্ডিসে আক্রান্ত রোগী মাছ-মাংসজাতীয় খাবার খেতে পারবেন না। এটা আসলে সম্পূর্ণ ভুল ধারণা।

২)সবজি: মিষ্টি আলু,মিষ্টিকুমড়া,  মুলা, টমেটো, ব্রকলি, ফুলকপি,বিট, গাজর, বাঁধাকপি ও পালংশাক ইত্যাদ জন্ডিস রোগীর খাদ্য তালিকায় রাখতে হবে।

৩)ফল: পেঁপে, পাকা আম, কলা, কমলা, জলপাই, অ্যাভোকাডো, বেরিস,তরমুজ, আনারস, আঙুরের মতো সহজপাচ্য ফল জন্ডিস রোগীর প্রতিদিনের খাদ্যতালিকায় থাকতে হবে।

৪)গোটা শস্য: কার্বোহাইড্রেটের চাহিদা পূরণে রুটি, ওট্স,বাদামি চাল খেতে পারেন। গোটা শস্যে প্রচুর ভিটামিন,আঁশ থাকে যা ক্ষতিকর টক্সিন বেরকরে দেয়।

৫)অ্যান্টি-অক্সিডেন্টযুক্ত খাবার: লেবুর শরবত জন্ডিস রোগীর জন্য খুবই ভালো। এগুলো শরীরে পানির চাহিদা পূরণের পাশাপাশি রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়। এ ছাড়া নিয়মিত  পরিমাণমতো বাদাম খেতে পারেন। সামান্য রসুন কুচি বা আদা কুচি,  আদার রস বা আদা-চা খাওয়া যেতে পারে দিনে দু-একবার। এগুলো যকৃতের জন্য অনেক উপকারী।

৬)পানি: প্রতিদিন পর্যাপ্ত পরিমাণ পানি পান করতে হবে। তবে অতিরিক্ত পানি পানের কোন প্রয়োজন নেই। পানি শরীরের ক্ষতিকর টক্সিন বের করে দিতে সাহায্য করে। আখের রস, ডাবের পানিও শরীরে পানির চাহিদা পূরণ করে। তবে রাস্তার পাশের আখের শরবত না পান করে ঘরে তৈরি শরবত খেতে হবে।

৭) পুদিনা পাতা: জন্ডিস থেকে মুক্তি পেতে পুদিনা পাতা বেশ কার্যকর। যকৃতের বিভিন্ন কাজে পুদিনা পাতা গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখে। তাই প্রতিদিন চার থেকে পাঁচটি প্রতিটা পাতা খাওয়ার চেষ্টা করবেন অথবা কোন জুসের সাথে পুদিনা পাতা খাবেন।

৮) টক দই: জন্ডিস হলে টক দই খাবেন কারণ,এটি হজমে সাহায্য করে ও রেচন ক্রিয়া সচল রাখতে সাহায্য করে। তবে কোনোভাবেই মিষ্টি দই খাবেন না তাহলে পেট খারাপ বা ডিসেন্ট্রি হয়ে যেতে পারে।

৯) আনারস: আনারস লিভার থেকে পিত্তরস রূপে জমে থাকা বিলিরুবিন বের করে দিতে সাহায্য করে। তাই জন্ডিস হলে বেশি বেশি আনারস খাবেন। চাইলে আনারসের জুসও খেতে পারেন।

১০) হারবাল টি: এটি জন্ডিস রোগীদের জন্য খুব উপকারী। হারবালটি হজমের জন্য খুবই উপযোগী। এছাড়াও এতে আছে শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি করার অনেক উপাদান।

১১) চিনি: জন্ডিস রোগীদের জন্য চিনি বেশ উপকারী। তবে সেটা সরাসরি চিনি খাওয়া নয়, চিনির বদলে আখের গুড়, আখের রস, গুড়ের শরবত ইত্যাদি খাবেন।

১২) দ্রুত হজম হয় এমন খাবার: দ্রুত হজম হয় এমন খাবার বেশি বেশি খেতে হবে। যেমন, তরল খাবার, ভেজিটেবল ,জুস ,স্যুপ ইত্যাদি। এ সময় রান্নায় হলুদ দিবেন না কারণ জন্ডিস রোগীরা হলুদের গন্ধ সহ্য করতে পারেনা।

১৩) ফাইবার সমৃদ্ধ খাবার: যেকোনো রোগেই ফাইবার সমৃদ্ধ খাবার খাওয়া প্রয়োজন। এটা দ্রুত হজমে সাহায্য করে। জন্ডিস রোগীরা বাদাম, ওটমিল ,সবজি ইত্যাদি খাবার খেতে পারেন।

 

জন্ডিস হলে কি ওষুধ খাব

জন্ডিস হলে কি ওষুধ খাব এমন কিছু ঔষধের নাম নিচে দেওয়া হল।

১)অ্যালেন এ ১৮ জন্ডিস ড্রপ ৩০ মিলি ড্রপ, মূল্য ১৩৬ টাকা।

২)sbl dolichos mother tincture Q ৩০ মিলি,  মূল্য ৯৫ টাকা।

৩)এসবিএল হাইড্রোকোটাইল এশিয়াটিকা ডিলিউশন ২০০, মূল্য ১৮০ টাকা।

৪)goealr hepsotome syrup ২০০ মিলি, মূল্য ১৮০ টাকা।

৫)Shree Divya Ayurved Sothari ৩০ মিলি মূল্য ১০৯ টাকা।

৬)Girko Hepatone Liver Tonic 200 ML মূল্য ৫৫ টাকা । 

৭)বৈদ্যনাথ লিভারেক্স ট্যাবলেট মূল্য ১০৯ টাকা 

৮) অ্যালেন ডার্মা প্লাস ক্রিম 25 গ্রাম মূল্য ৭৫ টাকা।

জন্ডিসের চিকিৎসা

জন্ডিস মূলত কোন রোগ নয় এটা হচ্ছে রোগের লক্ষণ বা উপসর্গ। আপনার যদি ঘন ঘন জন্ডিস হয় তাহলে বুঝে নিবেন মারাত্মক কোন রোগের ইঙ্গিত এটা। সাধারণত জন্ডিস হলে ১০ থেকে ১২ দিনের মধ্যেই ঠিক হয়ে যায়। এতটুকু সময়ের মধ্যেই আমাদের শরীর অটোমেটিক বিলিরুবিনের পরিমাণ ঠিক করে নেয়। তবে জন্ডিস থেকে মুক্তি পাওয়ার জন্য কিছু সহজ উপায় আছে যেমন:

১) পেটে অতিরিক্ত চাপ সৃষ্টি করে এমন কোন কাজ করবেন না।

২) বিশ্রাম নিবেন ও পর্যাপ্ত পরিমাণে ঘুমাবেন।

৩) অ্যাসপিরিন ,প্যারাসিটামল ও ব্যথার ওষুধ ইত্যাদি সেবন করবেন না।

৪) সহজে হজম হয়ে যায় এমন খাবার খাবেন।

৫) লিভারে চাপ পড়ে এমন কোন কাজ করবেন না ইত্যাদি।

সবশেষে

জন্ডিস কোন রোগ নয় এটা রোগের লক্ষণ বা উপসর্গ। অল্প চিকিৎসা ও নিয়ম কানুন মেনে চললে খুব সহজেই জন্ডিস দূর করা সম্ভব। উপরোক্ত আলোচনায় বলা ওষুধ গুলোর মাধ্যমে আপনি খুব সহজেই জন্ডিস দূর করতে পারবেন। আশা করি আজকের জন্ডিস হলে কি ওষুধ খাব আর্টিকেলটি থেকে আপনি কিছুটা হলেও উপকৃত হয়েছেন। আমাদের সাথে থাকার জন্য ধন্যবাদ।

Also read: শ্বাসকষ্ট থেকে চিরতরে মুক্তির উপায় 

Related Post

খুশির স্ট্যাটাস

200+ স্টাইলিশ খুশির স্ট্যাটাস | হাসি নিয়ে ক্যাপশন

খুশির স্ট্যাটাস | হাসি নিয়ে ক্যাপশন জীবনের সুন্দর খুশির মুহূর্ত আমরা সবাই বাঁধাই করে রাখতে চাই। আর এই খুশির মুহূর্তকে ধরে রাখার সবচেয়ে সহজ উপায়

Read More »
❤love status bangla | ভালোবাসার ছন্দ | রোমান্টিক ছন্দ | প্রেম ছন্দ স্ট্যাটাস❤

স্টাইলিশ ভালোবাসার ছন্দ | রোমান্টিক ছন্দ | Love Status Bangla

❤❤ভালোবাসার ছন্দ | ভালোবাসার ছন্দ রোমান্টিক | ভালোবাসার ছন্দ স্ট্যাটাস❤❤ ভালোবাসা হলো এক অন্যরকম অনুভূতির নাম, যা শুধুমাত্র কাউকে ভালবাসলেই অনুভব করা যায়। আমরা বিভিন্নভাবে

Read More »
মন খারাপের স্ট্যাটাস

মন খারাপের স্ট্যাটাস, উক্তি, ছন্দ, ক্যাপশন, কিছু কথা ও লেখা

মন খারাপের স্ট্যাটাস মন খারাপ – এই কষ্টের অনুভূতি কার না হয়? সবারই কখনো না কখনো সবারই মন খারাপ হয়। জীবনের ছোটোখাটো অঘটন থেকে শুরু

Read More »
রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের প্রেমের উক্তি

রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের প্রেমের উক্তি

রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের প্রেমের উক্তি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরকে বলা হয় বিশ্বকবি। তিনি ছিলেন একজন বিচক্ষণ ও গুনী লেখক। প্রেম চিরন্তন এবং সত্য। রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর বাঙালীর মনে প্রেমের

Read More »
ব্রেকআপ স্ট্যাটাস বাংলা

ব্রেকআপ স্ট্যাটাস বাংলা | Breakup Status Bangla

ব্রেকআপ স্ট্যাটাস বাংলা আপনি কি আপনার প্রিয়জনের সাথে সম্পর্ক থেকে বের হয়ে এসেছেন? আর সেটা আপনি কোন ব্রেকআপ স্ট্যাটাস বাংলা মাধ্যমে বোঝাতে চাচ্ছেন। তাহলে আপনি

Read More »

Leave a Comment

Table of Contents