Dreamy Media BD

ভোটার আইডি কার্ড সংশোধন

ভোটার আইডি কার্ড সংশোধন

ভোটার আইডি কার্ড সংশোধন

ভোটার আইডি কার্ডে বিভিন্ন কারণে ভুল হতে পারে আর এই ভুল কিভাবে খুব সহজে সংশোধন করা যায় তা আর্টিকেলে ধারাবাহিক ভাবে বর্ণনা করা হয়েছে। 

ভোটার আইডি কার্ড সংশোধন | প্রয়জনিয় কাগজপত্র 

 ভোটার আইডি কার্ড সংশোধন করতে প্রয়োজনীয় কাগজপত্র গুলো নির্ভর করে জাতীয় পরিচয় পত্রের কোন তথ্যটি সংশোধন করা হবে তার উপর।

নাম, পিতা/মাতার নাম, জন্ম তারিখ, ধর্ম, পেশা, ইত্যাদি সংশোধন করার জন্য প্রয়োজনীয় কাগজপত্র:

  • শিক্ষাগত যোগ্যতার সনদ (এসএসসি বা সমমানের সনদ)
  • অনলাইন জন্ম নিবন্ধন সনদ
  • পাসপোর্ট বা ড্রাইভিং লাইসেন্স

ঠিকানা সংশোধন করার জন্য প্রয়োজনীয় কাগজপত্র:

  • বিদ্যুৎ বিলের কাগজ
  • ইউটিলিটি বিলের কাগজ
  • নাগরিক সনদ
  • জমির খারিজ/পর্চার কপি

স্বামী/স্ত্রীর নাম সংশোধন করার জন্য প্রয়োজনীয় কাগজপত্র:

  • কাবিননামা

রক্তের গ্রুপ সংশোধন করার জন্য প্রয়োজনীয় কাগজপত্র:

  • রক্তের গ্রুপিং টেস্ট রিপোর্ট

অন্যান্য তথ্য সংশোধন করার জন্য প্রয়োজনীয় কাগজপত্র:

  • এফিডেভিট (হলফনামা)
  • নাগরিক সনদ
  • ওয়ারিশ সনদ

ভোটার আইডি কার্ড সংশোধনের নিয়ম 

ভোটার আইডি কার্ড সংশোধনের ধারাবাহিক নিয়ম নিচে সচিত্র বর্ণনা করা হলঃ 

প্রথম ধাপঃ একাউন্ট রেজিস্টার 

একাউন্ট করার সময় আবেদনকারীর ফেস ভেরিফিকেসন করতে হয়, তাই গুগল প্লে স্টোর থেকে NID Wallet আপটি ইন্সটল করে নিতে হবে। 

এরপর, যে কোন ব্রাউজার থেকে এই লিঙ্কে (https://services.nidw.gov.bd/nid-pub/ ) প্রবেশ করতে হবে, তাহলে নিচের চিত্রের মত একটি পেজ পাওয়া যাবে। এখান থেকে আপনার একাউন্ট রেজিস্টার করতে হবে । 

ভোটার আইডি কার্ড সংশোধন
ভোটার আইডি কার্ড সংশোধন

এখানে, রেজিস্ট্রেশন করুন এ ক্লিক করতে হবে, তাহলে নিচের চিত্রের মত, একটি ফরম আসবে। 

ভোটার আইডি কার্ড সংশোধন
ভোটার আইডি কার্ড সংশোধন

এখানে,  জাতীয় পরিচয় পত্র / ভোটার আইডি কার্ড / স্মার্ট কার্ড নম্বর ও জন্ম তারিখ দিতে হবে, তারপর ওখানে থাকা নিরাপত্তা কোডটি বসিয়ে ‘সাবমিট’ বাটনে ক্লিক করতে হবে। 

এই পর্যায়ে, নিচের চিত্রের মত ফরমের আরেকটি ধাপ আসবে, যেখানে আবেদনকারীর ঠিকানার তথ্য দিতে হবে।

ভোটার আইডি কার্ড সংশোধন

ঠিকানা দিতে, ক্রমনয়ে বিভাগ<জেলা<উপজেলা নির্বাচন করতে হবে। 

উপরের, ধাপগুলি ঠিক থাকলে আপনার একাউন্ট ভেরিফাই করতে আপনার একটা সচল মোবাইল নবর চাওয়া হবে।  

মোবাইল নবর দেবার পর ‘বার্তা পাঠান’ বাটনে ক্লিক করলে নতুন একটি পেজ আসবে, এখানে OTP চাওয়া হবে। 

ভোটার আইডি কার্ড সংশোধন

আপনার মোবাইল নম্বরে দেওয়া ৬ ডিজিটের OTP টি এখানে দিয়ে ‘বহাল’ বাটনে ক্লিক করতে হবে। 

দ্বিতীয় ধাপঃ ফেইস ভেরিফিকেসন করা 

 NID Wallet অ্যাপ থেকে ফেস ভেরিফিকেশন করতে, OTP জমা দেবার পর নিচের চিত্রের মত একটি QR কোড দেওয়া হবে। 

ভোটার আইডি কার্ড সংশোধন

এখানে আপনার মোবাইল থেকে NID Wallet অ্যাপ টি ওপেন করতে হবে। তারপর,  ভাষা নির্বাচন করে ‘ Agree and Continue’ বাটনে ক্লিক করলে QR Code স্ক্যানার আসবে। 

ভোটার আইডি কার্ড সংশোধন

এই QR Code স্ক্যানার দিয়ে আবেদনের সময় ওয়েব সাইটে দেওয়া আপনার কোড টি স্ক্যান করতে হবে। এর জন্য ‘Start Face Scan’ বাটনে ক্লিক করতে হবে। ভাল ভাবে স্ক্যান করতে আপনার মুখের সোজাসুজি ক্যামেরা ধরে একটু ডানে বামে ঘুরতে হবে। ফেস সফলভাবে স্ক্যান হলে, নিচের চিত্রের মত তিনটি টিক আসবে। 

ভোটার আইডি কার্ড সংশোধন

জদি, সফল্ভাবে ফেস ভেরিফিকেসন হয়, তাহলে ওয়েবে আপনাকে অভিনন্দন জনিয়ে একটি মেসেজ আসবে। 

ভোটার আইডি কার্ড সংশোধন

তৃতীয় ধাপঃ পাসওয়ার্ড সেট 

ভবিষ্যতে ফেস ভেরিফিকেসন ছাড়া লগইন করতে, একটি পাসওয়ার্ডসেট করে নিতে হবে। তার জন্য উপরের চিত্রের মত, ‘সেট পাসওয়ার্ড’ বাটনে ক্লিক করতে হবে এবং একটি পাসওয়ার্ড বানিয়ে নিতে হবে। 

চতুর্থ ধাপঃ আইডি কার্ড সংশোধন 

আপনার একাউন্ট রেজিস্ট্রেশন হয়ে গেলে এখন আপনার ভোটার আইডি কার্ডের ভুল সংশোধন করতে পারবেন। 

প্রথমে, https://services.nidw.gov.bd/nid-pub/ এই লিঙ্কে গিয়ে নিচের দিকে লগইন ফরম পাওয়া যাবে। 

ভোটার আইডি কার্ড সংশোধন

এখানে, আপনার NID Card Number ও সেট করা পাসওয়ার্ড টি দিয়ে লগইন করতে হবে। 

দ্বিতীয়ত, লগইন হবার পর নিচের চিত্রের মত একটি পেজ আসবে, এখান থেকে ‘প্রফাইল’ এ যেতে হতে। 

ভোটার আইডি কার্ড সংশোধন

এখান থেকে আপনার তিন ধরনের তথ্য সংশোধন করতে পারবেন। 

  • ব্যক্তিগত তথ্য – নাম, লিঙ্গ, রক্তের গ্রুপ, জন্ম নিবন্ধন নম্বর ও জন্ম তারিখ ইত্যাদি। 
  • ঠিকানা – বর্তমান বা স্থায়ী ।  
  • অন্যান্য তথ্য 

যে তথ্যটি আপনি পরিবর্তন করতে চান, সেটির বাম দিকে টিক করতে হবে, তারপর প্রমানপত্রের সাথে মিল রেখে সঠিক তথ্যটি দিন। পরবর্তী বাটনে ক্লিক করলে আপনার দেওয়া সঠিক তথ্যটি আরেকবার দেখাবে, সব ঠিক থাকলে পরবর্তী বাটনে ক্লিক করুন । 

ভোটার আইডি কার্ড সংশোধন

পঞ্চম ধাপঃ ভোটার আইডি কার্ড সংশোধন ফি প্রদান 

ভোটার আইডি কার্ডের তথ্য সংশোধন ফি আপনার সংশোধন এর ধরন সময় ও বিভিন্ন বিষয়ের উপর ভিন্ন হয়ে থাকেঃ 

ভোটার আইডি কার্ড সংশোধন ফি 

সংশোধনের ধরনফির পরিমাণ
এনআইডি তথ্য সংশোধন (নাম, পিতা/মাতার নাম, ঠিকানা, জন্ম তারিখ, ধর্ম, পেশা, ইত্যাদি)ভ্যাট সহ ২৩০ টাকা
অন্যান্য তথ্য সংশোধন (মোবাইল নম্বর, ইমেল ঠিকানা, পেশা, ইত্যাদি)১১৫ টাকা
উভয় তথ্য সংশোধনভ্যাট সহ ৩৪৫ টাকা
রি ইস্যু (নিয়মিত)৩৪৫ টাকা
রি ইস্যু (জরুরী)৫৭৫ টাকা

আপনার সংশোধন করা তথ্যের ভিত্তিতে যে কোন অনলাইন ব্যাংকিং এর মাধ্যমে এই পেমেন্ট করতে পারবেন। এখানে, আপনার সুবিধার জন্য বিকাশের উদাহরন দেওয়া হলঃ 

 বিকাশের মাধ্যমে ফি প্রদান

 বিকাশের মাধ্যমে ভোটার আইডি কার্ড সংশোধন ফি দিতে হলে, নিচের ধাপগুলি অনুসরণ করুন:

ভোটার আইডি কার্ড সংশোধন

  • আপনার বিকাশ অ্যাপটি খুলুন এবং আপনার বিকাশ একাউন্টে লগ ইন করুন।
  • “পে” অপশনে ক্লিক করুন।
  • “সরকারি ফি” অপশনে ক্লিক করুন।
  • “জাতীয় পরিচয়পত্র” অপশনে ক্লিক করুন।
  • আপনার জাতীয় পরিচয়পত্র নম্বরটি ইংরেজিতে লিখুন।
  • আপনার আবেদনের ধরণ নির্বাচন করুন।
  • ফির পরিমাণ প্রদর্শিত হবে।
  • “পে” অপশনে ক্লিক করুন।
  • আপনার মোবাইল নম্বরে একটি OTP আসবে। OTP প্রবেশ করুন এবং “সাবমিট” অপশনে ক্লিক করুন।
  • আপনার ফি পরিশোধ হয়ে যাবে।

 পেমেন্ট করা হয়ে গেলে আবারজাতীয় পরিচয়পত্রের ওয়েবসাইটে ফিরে গিয়ে আপনার আবেদনটি জমা দেবার বাকি কাজ করতে হবে।

ষষ্ঠ ধাপঃ ডকুমেন্ট আপলোড 

আপনি যে তথ্যটি সংশোধন করার জন্য আবেদন করেছেন, সেটার স্বপক্ষে আপনাকে প্রয়োজনীয় কাগজপত্র বা ডকুমেন্ট আপলোড দিতে হবে। এর জন্য আপনার প্রয়জিনিয় কাগজপত্র ছবি তুলে বা স্ক্যান করে আপলোড দিতে হবে। 

সপ্তম ধাপঃ ভোটার আইডি কার্ড সংশোধন ফরম ডাউনলোড

আবেদনের সমস্ত প্রক্রিয়া শেষে আপনার মুল  ড্যাশবোর্ডে থেকে আবেদনের ফরম টি ডাউনলোড করে নিতে পারবেন।  ড্যাশবোর্ডে এর উপরের দিকে এই ডাউনলোড লিংক টি পাওয়া যাবে। 

এভাবেই উপরের প্রক্রিয়া অনুসরন করে আপনি আপনার ভুল, ভোটার আইডি কার্ড সংশোধন করতে পারবেন। 

ভোটার আইডি কার্ড সংশোধন | ধারাবাহিক প্রশ্ন – FAQ 

অনালাইনে অনেকেই এই বিষয়ে জানতে চায়, এখানে আমাদের পাঠকের জন্য ‘ ভোটার আইডি কার্ড সংশোধন’ সম্পর্কিত কিছু প্রশ্নের উত্তর দেওয়া হল। 

প্রশ্নঃ ভোটার আইডি কার্ড নাম সংশোধন কিভাবে করব? 

উত্তরঃ ভোটার আইডি কার্ড নাম সংশোধন করার পদ্ধতি:

  • অনলাইনে: বাংলাদেশ নির্বাচন কমিশনের ওয়েবসাইট থেকে অনলাইনে আবেদন করতে হবে। প্রয়োজনীয় তথ্য ও কাগজপত্র আপলোড করতে হবে।
  • অফলাইন: উপজেলা নির্বাচন অফিসে গিয়ে আবেদন করতে হবে। প্রয়োজনীয় তথ্য ও কাগজপত্র জমা দিতে হবে।

প্রশ্নঃ জাতীয় পরিচয় পত্র সংশোধন অনলাইন আবেদন ওয়েবসাইট লিংক 

উত্তরঃ জাতীয় পরিচয় পত্র সংশোধন অনলাইন আবেদন ওয়েবসাইট লিংক হল: https://services.nidw.gov.bd/ 

এই ওয়েবসাইটে গিয়ে, আপনি আপনার জাতীয় পরিচয় পত্র সংশোধনের জন্য অনলাইনে আবেদন করতে পারবেন।

প্রশ্নঃ ভোটার আইডি কার্ড কতবার সংশোধন করা যায়?

উত্তরঃ ভোটার আইডি কার্ডে একই তথ্য এক বারের বেশী সংশোধন করা যায় না। তবে, ঠিকানা, স্বামীর নাম, স্ত্রীর নাম এবং রক্তের গ্রুপ একাধিকবার সংশোধন করা যায়।

প্রশ্নঃ জাতীয় পরিচয় পত্র সংশোধন কোথায় করে? 

উত্তরঃ জাতীয় পরিচয় পত্র সংশোধন করার জন্য আপনি নিম্নলিখিত স্থানে আবেদন করতে পারেন:

  • অনলাইনে।
  • উপজেলা নির্বাচন অফিসে।

প্রশ্নঃ এনআইডি সংশোধন করতে কি কি লাগে? 

উত্তরঃ জাতীয় পরিচয়পত্র (এনআইডি) সংশোধনের জন্য নিম্নলিখিত কাগজপত্র প্রয়োজন:

  • জাতীয় পরিচয়পত্রের ফটোকপি
  • জন্ম নিবন্ধন সনদ
  • শিক্ষাগত যোগ্যতার সনদ
  • অন্যান্য প্রয়োজনীয় কাগজপত্র

প্রশ্নঃ আইডি কার্ড সংশোধন করতে কত টাকা লাগে? 

উত্তরঃ ভোটার আইডি কার্ডের তথ্য সংশোধন করতে ২৩০ টাকা লাগে উপরন্তু এনআইডি কার্ডের অন্যান্য তথ্য সংশোধনের জন্য ১১৫ টাকা এবং উভয় ধরনের তথ্য সংশোধনের জন্য মোট ৩৪৫ টাকা লাগে।

প্রশ্নঃ স্মার্ট কার্ডের ভুল সংশোধন কিভাবে করে? 

উত্তরঃ ভোটার আইডি কার্ডের মতই এটিও করতে হয়, উপরে বিস্তারিত বর্ণনা দেওয়া আছে। 

প্রশ্নঃ ভোটার আইডি কার্ড জন্ম তারিখ সংশোধন কিভাবে করব? 

উত্তরঃ ভোটার আইডি কার্ড জন্ম তারিখ সংশোধন করার জন্য দুইটি পদ্ধতি রয়েছে:

১. অনলাইনে: বাংলাদেশ নির্বাচন কমিশনের ওয়েবসাইটে যান।

২. অফলাইনে: আপনার নিবন্ধিত ঠিকানার উপজেলা নির্বাচন অফিসে যান।

প্রশ্নঃ ভোটার আইডি কার্ড সংশোধন ফরম 

উত্তরঃ ভোটার আইডি কার্ড সংশোধন ফরম হল একটি নির্দিষ্ট ফর্ম যা জাতীয় পরিচয়পত্র (এনআইডি) সংশোধনের জন্য ব্যবহার করা হয়। এই ফর্মটিতে আবেদনকারীর ব্যক্তিগত তথ্য, যেমন নাম, পিতা/মাতার নাম, ঠিকানা, জন্ম তারিখ, ধর্ম, পেশা, ইত্যাদি এবং সংশোধনের প্রয়োজনীয় তথ্য পূরণ করতে হবে।

ভোটার আইডি কার্ড সংশোধন ফরম ডাউনলোড করতে নিচের লিঙ্কটিতে ক্লিক করুন: https://nidw.gov.bd/download/NIDForms/form2_correction.pdf 

প্রশ্নঃ অনলাইনে ভোটার আইডি কার্ড সংশোধন করতে কত দিন লাগে? 

উত্তরঃ অনলাইনে ভোটার আইডি কার্ড সংশোধন করতে সর্বোচ্চ ৩০ দিন লাগে। তবে, সাধারণত ১৫ কার্যদিবসের মধ্যে আবেদনটি নিষ্পত্তি করা হয়।

প্রশ্নঃ NID সংশোধন ফি জমা দেওয়ার নিয়ম? 

উত্তরঃ জাতীয় পরিচয়পত্র সংশোধন ফি জমা দেওয়ার নিয়ম নিম্নরূপ:

অনলাইনে ফি জমা দেওয়ার নিয়ম:

  • বাংলাদেশ নির্বাচন কমিশনের ওয়েবসাইটে যান।
  • “জাতীয় পরিচয়পত্র” অপশনে ক্লিক করুন।
  • “সংশোধন” অপশনে ক্লিক করুন।
  • “ফি জমা দিন” অপশনে ক্লিক করুন।
  • আপনার প্রয়োজনীয় তথ্য এবং কাগজপত্র আপলোড করুন।
  • “আবেদন জমা দিন” অপশনে ক্লিক করুন।
  • আপনার পছন্দের পেমেন্ট গেটওয়ে নির্বাচন করুন।
  • আপনার পেমেন্ট গেটওয়েতে প্রদর্শিত নির্দেশাবলী অনুসরণ করে আপনার ফি প্রদান করুন।

আশা করি এই তথগুলির মাধ্যমে খুব সহজে আপনি আপনার ভোটার আইডি কার্ড সংশোধন করতে পারবেন। 

Read more : ব্যাংক একাউন্ট খোলার নিয়ম 

Related Post

খুশির স্ট্যাটাস

200+ স্টাইলিশ খুশির স্ট্যাটাস | হাসি নিয়ে ক্যাপশন

খুশির স্ট্যাটাস | হাসি নিয়ে ক্যাপশন জীবনের সুন্দর খুশির মুহূর্ত আমরা সবাই বাঁধাই করে রাখতে চাই। আর এই খুশির মুহূর্তকে ধরে রাখার সবচেয়ে সহজ উপায়

Read More »
❤love status bangla | ভালোবাসার ছন্দ | রোমান্টিক ছন্দ | প্রেম ছন্দ স্ট্যাটাস❤

স্টাইলিশ ভালোবাসার ছন্দ | রোমান্টিক ছন্দ | Love Status Bangla

❤❤ভালোবাসার ছন্দ | ভালোবাসার ছন্দ রোমান্টিক | ভালোবাসার ছন্দ স্ট্যাটাস❤❤ ভালোবাসা হলো এক অন্যরকম অনুভূতির নাম, যা শুধুমাত্র কাউকে ভালবাসলেই অনুভব করা যায়। আমরা বিভিন্নভাবে

Read More »
মন খারাপের স্ট্যাটাস

মন খারাপের স্ট্যাটাস, উক্তি, ছন্দ, ক্যাপশন, কিছু কথা ও লেখা

মন খারাপের স্ট্যাটাস মন খারাপ – এই কষ্টের অনুভূতি কার না হয়? সবারই কখনো না কখনো সবারই মন খারাপ হয়। জীবনের ছোটোখাটো অঘটন থেকে শুরু

Read More »
রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের প্রেমের উক্তি

রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের প্রেমের উক্তি

রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের প্রেমের উক্তি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরকে বলা হয় বিশ্বকবি। তিনি ছিলেন একজন বিচক্ষণ ও গুনী লেখক। প্রেম চিরন্তন এবং সত্য। রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর বাঙালীর মনে প্রেমের

Read More »
ব্রেকআপ স্ট্যাটাস বাংলা

ব্রেকআপ স্ট্যাটাস বাংলা | Breakup Status Bangla

ব্রেকআপ স্ট্যাটাস বাংলা আপনি কি আপনার প্রিয়জনের সাথে সম্পর্ক থেকে বের হয়ে এসেছেন? আর সেটা আপনি কোন ব্রেকআপ স্ট্যাটাস বাংলা মাধ্যমে বোঝাতে চাচ্ছেন। তাহলে আপনি

Read More »

Leave a Comment

Table of Contents