Dreamy Media BD

কর্মসংস্থান ব্যাংক লোন পাওয়ার উপায় 

কর্মসংস্থান ব্যাংক লোন পাওয়ার উপায়

কর্মসংস্থান ব্যাংক লোন পাওয়ার উপায় 

কর্মসংস্থান ব্যাংক রাষ্ট্র মালিকানাধীন একটি আর্থিক প্রতিষ্ঠান। দেশের বেকারত্ব দূর করার লক্ষ্যে ও বেকারদের অর্থনৈতিক উন্নয়ন কর্মকান্ডে সম্পৃক্ত করে দারিদ্র্য বিমোচন করার লক্ষ্যে ১৯৯৮ খ্রিষ্টাব্দের ৭নং আইন দ্বারা কর্মসংস্থান ব্যাংক প্রতিষ্ঠিত হয়। বর্তমানে কর্মসংস্থান ব্যাংকের ১৫টি আঞ্চলিক কার্যালয় ও ২১২টি শাখার নেটওয়ার্ক রয়েছে। প্রত্যেকটি জেলা সদরে প্রধান শাখা (৬৪টি), ঢাকা ব্যতিত ঢাকা মহানগরে ৬টি এবং উপজেলা সদরে মোট ১৪২টি শাখার মাধ্যমে কর্মসংস্থান ব্যাংক সেবা প্রদান করছে। 

কর্মসংস্থান ব্যাংক লোন পদ্ধতি একটি বিশেষ ব্যাংকিং প্রতিষ্ঠান যা বেকারদের উদ্যোগে লোন প্রদান করে এবং তাদেরকে স্বয়ংসম্পূর্ণ কর্মসংস্থান দিয়ে উদ্যোগী করে থাকে। এই ব্যাংকটি বাংলাদেশে সক্ষম বেকারদের সাহায্য করার লক্ষ্যে প্রতিষ্ঠিত হয়েছে।এই ব্যাংকটি নির্ধারিত শর্ত সাপেক্ষে কর্মসংস্থান ব্যাংক লোন পদ্ধতির মাধ্যমে সামরিক বেকারদের উদ্যোগে নির্মাণশীল কাজে সহায়তা প্রদান করে থাকে। তাইতো দেশের হাজারো বেকার যুবক কর্মসংস্থান ব্যাংক থেকে লোন নেওয়ার উপায় খুঁজে থাকে। কিন্তু সঠিক উপায়ে পদ্ধতি না জানার কারণে তারা লোন পায় না। 

এই আর্টিকেলে কর্মসংস্থান ব্যাংক এ লোন পাওয়ার উপায় সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করব। তাই চলুন দেরি না করে এখনই আর্টিকেলটি শুরু করা যাক:

কর্মসংস্থান ব্যাংক লোন নেওয়ার শর্তাবলী

কর্মসংস্থান ব্যাংক লোন পেতে হলে আপনাকে কিছু শর্ত মানতে হবে এগুলো হচ্ছে,

১)ব্যাক্তিগত যোগ্যতা

আপনার ব্যাক্তিগত যোগ্যতা নির্ধারণ করা হবে। এটি শিক্ষাগত যোগ্যতা, পেশাগত দক্ষতা, অভিজ্ঞতা ইত্যাদির উপর ভিত্তি করে হতে পারে।

২)বয়স সীমা

আপনার বয়স সীমা অনুযায়ী হতে হবে। কর্মসংস্থান ব্যাংক বাংলাদেশের ১৮ থেকে ৩৮ বছর বয়সী বেকারদের ক্ষেত্রে লোন প্রদান করে।

৩)যুব প্রশিক্ষণ

আপনাকে একটি সরকারি অনুমোদিত প্রতিষ্ঠান থেকে যুব প্রশিক্ষণ প্রাপ্ত করতে হবে। যুব প্রশিক্ষণের মাধ্যমে আপনি পেশাগত দক্ষতা উন্নত করতে পারেন এবং লোন প্রদানের জন্য যোগ্য হতে পারেন।

৪)আবেদন পদ্ধতি

কর্মসংস্থান ব্যাংকের ওয়েবসাইট বা শাখার অফিসে গিয়ে আপনি সঠিকভাবে আবেদন পত্র পূরণ করতে হবেন। আপনার ব্যাক্তিগত ও আর্থিক তথ্য প্রদান করতে হবে এবং আবেদন ফরমের সকল প্রয়োজনীয় শর্তগুলো মেনে চলতে হবে।

কর্মসংস্থান ব্যাংক থেকে লোন নেওয়ার যোগ্যতা

কর্মসংস্থান ব্যাংক লোন পেতে হলে আপনাকে যোগ্য হতে হবে। কর্মসংস্থান ব্যাংক লোন পাওয়ার যোগ্যতা গুলো হল,

১) আপনাকে যেকোনো কর্মসংস্থানে নিয়োগ হতে হবে। কর্মসংস্থান ব্যাংক লোন প্রদান করে বেকারদের উদ্যোগে স্বয়ংসম্পূর্ণ হয়ে থাকে। তাই আপনাকে কর্মসংস্থানে নিয়োগ প্রাপ্ত করতে হবে।

২) আপনার বয়স ১৮ থেকে ৩৮ বছরের মধ্যে হতে হবে। এই বয়স সীমার মধ্যে কর্মসংস্থান ব্যাংক লোন প্রদান করতে পারে।

২)আপনার আর্থিক স্থিতি পর্যায়ক্রমে উৎসাহ জনক হতে হবে। লোন প্রাপ্তির জন্য আপনার আর্থিক স্থিতি পর্যায়ক্রমে উৎসাহ জনক হতে হবে এবং আপনার প্রাথমিকতা বোঝাবে।

৩)আপনাকে কর্মসংস্থান ব্যাংকের পদ্ধতিতে আবেদন করতে হবে। এটি আপনার মূল্যায়ন প্রক্রিয়ায় সহায়তা করবে এবং আপনার সম্পূর্ণ ব্যাক্তিগত ও আর্থিক তথ্য জমা দিতে হবে।

৪)উপরের উল্লিখিত যোগ্যতা গুলি সম্পূর্ণ করলে আপনি কর্মসংস্থান ব্যাংক থেকে লোন নিতে যোগ্য হবেন। 

কর্মসংস্থান ব্যাংক থেকে লোন নেয়ার কাগজপত্র

কর্মসংস্থান ব্যাংক থেকে লোন পেতে হলে আপনাকে কিছু প্রয়োজনীয় কাগজপত্র দিতে হবে এগুলো হচ্ছে,

১)আবেদন ফরম

সর্বপ্রথম আপনাকে কর্মসংস্থান ব্যাংকের লোন আবেদন ফরম সঠিকভাবে পূরণ করতে হবে। আবেদন ফরমে আপনার ব্যাক্তিগত ও আর্থিক তথ্য প্রদান করতে হবে।

২)ছবি

আবেদনকারীর সঙ্গে দুটি পাসপোর্ট সাইজের ছবি সংযুক্ত করতে হবে। এই ছবিগুলো আপনার পরিচিতি সহ থাকতে হবে এবং সত্যায়িত হওয়া উচিত।

৩)আদেশপত্র

কর্মসংস্থান ব্যাংক থেকে লোন প্রাপ্তির জন্য আপনাকে উদ্যোক্তার আদেশপত্র সংগ্রহ করতে হবে। এই পত্রটি উদ্যোক্তার নমনীর দলিল হিসেবে কাজ করবে এবং সত্যায়িত করতে হবে। এছাড়াও উদ্যোক্তার নিকটস্থ ইউপি চেয়ারম্যান প্রদত্ত নাগরিকত্ব সনদও সংগ্রহ করতে হবে।

৪)অন্যান্য কাগজপত্র

আপনার লোন পরিমাণ এক লাখ টাকা অথবা তার বেশি হলে, আপনাকে ট্রেড লাইসেন্স এবং ড্রাগ লাইসেন্সের কপি সংগ্রহ করতে পারেন। এই কাগজপত্রগুলো আপনার ব্যবসার ধরণ ও স্থানান্তরের উপর নির্ভর করবে।

যে সকল খাতে আপনি কর্মসংস্থান লোন পেতে পাবেন 

১)ব্যবসা খাত

বিভিন্ন ব্যবসা খাতে আপনি কর্মসংস্থান লোন পাবেন। যেমন,কৃষি পণ্য ক্রয়-বিক্রয়, তৈরি পোষাক ব্যবসা,ইলেকট্রনিক্স সামগ্রী,ডিপার্টমেন্টাল স্টোর বা ঔষধের ব্যবসার মতো খাতেও এই ব্যাংক থেকে লোন সুবিধা পাওয়া যায়। আপনি এমন কোন ব্যবসা শুরু করার আগে লোনের প্রয়োজন হলে কর্মসংস্থান ব্যাংক এর সাথে আলাপ করতে পারেন।

২)সেবা খাত

বিভিন্ন সেবামূলক খাতে কর্মসংস্থান ব্যাংক লোন দিয়ে থাকে। যেমন,ডায়াগনস্টিক সেন্টার বা ক্লিনিক, আবাসিক হোটেল, বা বিউটি পার্লার, ক্যাবল অপারেটর সার্ভিস, কম্পিউটার সেবাগাড়ি মেরামত ওয়ার্কশপ, জেনারেটরের মাধ্যমে বিদ্যুত বিতরণ এর মতো সেবামূলক খাতে বিনিয়োগ করতে চাইলে কর্মসংস্থান ব্যাংক আপনাকে সাহায্য করবে। 

৩)মৎস চাষ

মৎস্য চাষ বর্তমানে লাভজনক ব্যবসা গুলোর মধ্যে একটি। যেমন,রেণু পোনা, তেলাপিয়া, চিংড়ি, পাংগাস, কার্প জাতীয় মাছ, বা মিশ্র মৎস চাষ ইত্যাদি উদ্যোগের কাজ করতে চাইলে কর্মসংস্থান ব্যাংক আপনাকে লোন দিবে।

৪)উৎপাদনশীল প্রকল্প

বিভিন্ন প্রকার উৎপাদনশীল প্রকল্পে কর্মসংস্থান ব্যাংক লোন দিয়ে থাকে। যেমন মাশরুম চাষ, রেশন চাষ, নার্সারী এর মতো খাতে বিনিয়োগ করতে চাইলে কর্মসংস্থান ব্যাংকে যোগাযোগ করতে পারেন।

৫)গবাদীপশু ও হাঁস-মুরগী পালন

বিভিন্ন গবাদি পশুর খামার ও হাঁস মুরগি পালনে কর্মসংস্থান ব্যাংক আপনাকে লোন দিবে। যেমন,গরু মোটাতাজাকরণ, দুগ্ধ খামার, ছাগল, ভেড়া পালন,ব্রয়লার মুরগীর খামার, লেয়ার মুরগীর খামার অথবা কোয়েল পালনের মতো প্রজেক্ট শুরু করতে‌ চান তাহলে এই ব্যাংক আপনাকে লোন দিবে। 

৬)ক্ষুদ্র ও কুটির শিল্প

দেশের বেকারত্ব দূর করতে ক্ষুদ্র ও কুটির শিল্প অনেক বড় ভূমিকা রাখতে পারে। বাঁশ ও বেত শিল্প, প্রিন্টিং এবং সাইনবোর্ড তৈরি, যন্ত্রাংশ বা যন্ত্রপাতি তৈরি সহ বিভিন্ন ধরণের কুটির শিল্পের জন্য আপনি এখান থেকে লোন পেতে পারেন।

৭) পরিবহন সেবা

আপনি যদি পণ্য/যাত্রী পরিবহন করার জন্য অথবা লাইসেন্সপ্রাপ্ত/শিক্ষানবিশ ড্রাইভার হিসাবে নিজেকে আত্মনির্ভরশীল করে গড়ে তুলতে চান তাহলে কর্মসংস্থান ব্যাংক আপনাকে লোন দিবে। পরিবহন সেবার মান উন্নয়ন ও দেশের বেকারত্ব দূর করতে সরকার এই খাতে কর্মসংস্থান লোন দেওয়া শুরু করেছে।

৮)শিল্প-কারখানা

আপনি যদি কোন শিল্প-কারখানা স্থাপন করতে চান, কর্মসংস্থান ব্যাংক আপনার পাশে থাকবে।প্রাণী খাদ্য তৈরির কারখানা, কৃষি যন্ত্রপাতি তৈরি, , রাইস মিল, বেকারী শিল্প সহ আরো অনেক ধরণের শিল্প-কারখানা স্থাপনে আপনি ঋণ সুবিধা পাবেন।

কর্মসংস্থান ব্যাংকের সুদের হার

কৃষিখাতে-৮%-৯%

ক্ষুদ্র ও কুটির শিল্পে -১৩%

প্রাণিসম্পদ খাতে-১০%

বাণিজ্যিক খাতে-১৩%

কর্মসংস্থান ব্যাংকের ঋণের পরিমান ও মেয়াদ

১)একজন ব্যক্তি সর্বোচ্চ ২৫ লক্ষ টাকা ঋণ গ্রহণ করতে পারবেন। তবে যদি গ্রুপ ব্যবসা হয়ে থাকে তবে সর্বোচ্চ ৫০ লক্ষ টাকা পর্যন্ত ঋণ পাওয়া যাবে।

২)ঋণের মেয়াদ সাধারনত ২ বছর হয়ে থাকে। তবে বিশেষ অবস্থায় এর মেয়াদ সর্বোচ্চ ৫ বছর পর্যন্ত বাড়তে পারে।

৩)কর্মসংস্থান ব্যাংকে ঋণ নিতে হলে দুই তিন জন নমিনির প্রয়োজন হয়ে থাকে। নমিনি যে কেউ হতে পারবে। 

আবেদনকারী কে ঋণের সময় যে সকল কাগজপত্র  জমা দিতে হবে

  • ঋণগ্রহীতার জাতীয় পরিচয়পত্রের ফটোকপি ও পাসপোর্ট সাইজ ছবি।
  • নমিনির জাতীয় পরিচয়পত্রের ফটোকপি ও ছবি।
  • ঋণগ্রহীতা ও নমিনির এর নাগরিকত্ব সনদপত্র।
  • ঋণগ্রহীতার শিক্ষাগত যোগ্যতার সনদপত্র ও প্রশিক্ষনের সনদপত্র।
  • ট্রেড লাইসেন্সের ফটোকপি।

সবশেষে

কর্মসংস্থান ব্যাংক দেশের উন্নতি ও দেশ থেকে বেকার মুক্ত করতে ও যুবকদের উদ্যোগী করে তুলতে বিভিন্ন খাতে বেকার যুবকদের লোন দিয়ে থাকে। আপনি যদি উপরে উল্লিখিত যোগ্যতা সম্পন্ন হয়ে থাকেন এবং আপনি লোন প্রদানের জন্য উদ্যোগী হন, তবে আপনি কর্মসংস্থান ব্যাংক থেকে লোন পাওয়ার সুযোগ পেতে পারেন। এছাড়াও বিস্তারিত সকল তথ্য জানতে আপনি সরাসরি আপনার আশেপাশে থাকা  কর্মসংস্থান ব্যাংকে যোগাযোগ করতে পারেন এবং তাদের কর্মসংস্থান ব্যাংক লোন পদ্ধতি সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে পারেন। আশা করি আজকের এই আর্টিকেলটি থেকে আপনি কিছুটা হলেও উপকৃত হয়েছে। আমাদের সাথে থাকার জন্য ধন্যবাদ

Also Read : মালয়েশিয়া ভিসা চেক করার নিয়ম

Related Post

খুশির স্ট্যাটাস

200+ স্টাইলিশ খুশির স্ট্যাটাস | হাসি নিয়ে ক্যাপশন

খুশির স্ট্যাটাস | হাসি নিয়ে ক্যাপশন জীবনের সুন্দর খুশির মুহূর্ত আমরা সবাই বাঁধাই করে রাখতে চাই। আর এই খুশির মুহূর্তকে ধরে রাখার সবচেয়ে সহজ উপায়

Read More »

স্টাইলিশ ভালোবাসার ছন্দ | রোমান্টিক ছন্দ | Love Status Bangla

❤❤ভালোবাসার ছন্দ | ভালোবাসার ছন্দ রোমান্টিক | ভালোবাসার ছন্দ স্ট্যাটাস❤❤ ভালোবাসা হলো এক অন্যরকম অনুভূতির নাম, যা শুধুমাত্র কাউকে ভালবাসলেই অনুভব করা যায়। আমরা বিভিন্নভাবে

Read More »
মন খারাপের স্ট্যাটাস

মন খারাপের স্ট্যাটাস, উক্তি, ছন্দ, ক্যাপশন, কিছু কথা ও লেখা

মন খারাপের স্ট্যাটাস মন খারাপ – এই কষ্টের অনুভূতি কার না হয়? সবারই কখনো না কখনো সবারই মন খারাপ হয়। জীবনের ছোটোখাটো অঘটন থেকে শুরু

Read More »
রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের প্রেমের উক্তি

রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের প্রেমের উক্তি

রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের প্রেমের উক্তি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরকে বলা হয় বিশ্বকবি। তিনি ছিলেন একজন বিচক্ষণ ও গুনী লেখক। প্রেম চিরন্তন এবং সত্য। রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর বাঙালীর মনে প্রেমের

Read More »
ব্রেকআপ স্ট্যাটাস বাংলা

ব্রেকআপ স্ট্যাটাস বাংলা | Breakup Status Bangla

ব্রেকআপ স্ট্যাটাস বাংলা আপনি কি আপনার প্রিয়জনের সাথে সম্পর্ক থেকে বের হয়ে এসেছেন? আর সেটা আপনি কোন ব্রেকআপ স্ট্যাটাস বাংলা মাধ্যমে বোঝাতে চাচ্ছেন। তাহলে আপনি

Read More »

Leave a Comment

Table of Contents