Dreamy Media BD

লেবু দিয়ে রূপচর্চা

লেবু দিয়ে রূপচর্চা

লেবু এমন একটি ফল যেটি ছোট থেকে বড় সবাই চিনে। ভিটামিন সি যুক্ত এই ফলটি নানান গুনের কারনে সবার কাছে অনেক প্রিয়৷ লেবু নিয়ে আমাদের দেশে একটি জোকস প্রচলিত আছে যে বাঙ্গালীদের ফ্রিজ চেনার উপায় হচ্ছে প্রতিটি ফ্রিজে লেবুর পিস পাওয়া যাবে। এই লেবু এমনি এমনি জনপ্রিয় হয়নি বাঙ্গালীদের কাছে।

লেবু দিয়ে রূপচর্চার উপকরণ হিসেবে ব্যবহার, ওষুধ হিসেবে ব্যবহার, ক্লিনজার হিসেবে ব্যবহার কখনো বা ব্যবহার হয় পোকা দমনের কাজে৷ আজকের এই আর্টিকেলে আলোচনা করব কিভাবে লেবু দিয়ে রূপচর্চা করা যায়। যুগ যুগ ধরে মেয়েরা রুপচর্চার কাজে লেবু ব্যবহার করে আসছে। প্রাকৃতিক উপায়ে ত্বকের ও চুলের যত্ন করার জন্য লেবু অনেক গুরুত্বপূর্ণ একটি উপাদান।

ত্বক ফরসা করতে লেবুর ব্যবহার

যাদের ত্বক শ্যামলা এবং শ্যামলা হওয়ার জন্য অনেক সময় হীনমন্যতায় ভুগেন।  তারা লেবু ব্যবহার করে আপনাদের ত্বক কে আরো উজ্বল ও সুন্দর করতে পারেন। ত্বক ফরসা বা উজ্বল করার জন্য বিভিন্ন উপায়ে লেবু ব্যবহার করতে পারেন। যেমন:

লেবু ও আলুর প্যাক:

একটি মাঝারি সাইজের আলু পরিষ্কার করে ব্লেন্ড করে নিন। এবার এই পেষ্টের সাথে কয়েক ফোটা লেবুর রস দিয়ে ভালভাবে মিশিয়ে নিন। পেষ্টটি এবার পুরো মুখে ও গলায় ভাল ভাবে লাগিয়ে নিন। আপনি চাইলে হাতে বা অন্যান্য স্থান গুলোতেও লাগাতে পারেন উজ্বলতা বৃদ্ধির জন্য। আলুনো লেবুর এই মিশ্রনটি সপ্তাহে দুই দিন ব্যবহার করতে পারেন। তারপর নিজেই ফলাফল দেখতে পারবেন। এই প্যাকটি ব্যবহার করলে ত্বকের ছোপছোপ দাগ দূর হয় ফলে ত্বক আরো উজ্বল দেখায়।

লেবু ও দুধের প্যাক:

সবাই চায় নিজেকে অন্যের সামনে আকর্ষণীয় ও সুন্দর ভাবে উপস্থাপন করতে। লেবু ও দুধের রয়েছে সাইট্রিক এসিড ও ল্যাকটিক এসিড৷ এই দুই এসিড একত্রিত হয়ে ত্বকের মরা কোষ গুলো উঠিয়ে ফেলে। ফলে ত্বক উজ্বল ও মোলায়েম হয়।

লেবু ও দুধের প্যাক তৈরি করতে এক টেবিল চামচ দুধ ও হাফ চামচ লেবুর রস নিন। এবার ভালভাবে মিশিয়ে নিন। এবার পুরো মুখ ও গলায় লাগিয়ে ১৫ থেকে ২০ মিনিট অপেক্ষা করুন। তারপর ঠান্ডা পানি দিয়ে ভালভাবে ধুয়ে নিন। এই মিশ্রনটি সপ্তাহে এক দিন ব্যবহার করতে পারেন। 

লেবু ও মধুর মিশ্রন:

লেবু ও মধুর মিশ্রন
লেবু ও মধুর মিশ্রন

উজ্বলতা বাড়ানোর জন্য লেবু ও মধুর মিশ্রন দারুন কার্যকরী একটি উপাদান। মধুতে রয়েছে প্রোটিন,  কার্বোহাইড্রেট, অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট সহ আরো নানা উপাদান। এই উপাদান গুলো ত্বকের জন্য অত্যন্ত উপকারী। লেবু ও মধুর মিশ্রন ব্যবহার করলে ত্বকের কালো দাগ, মেছতা, ব্রনের দাগ সহ অন্যান্য দাগ দূর করে। ফলে ত্বক উজ্বল ও কোমল হয়। 

লেবু ও মধুর এই মিশ্রন তৈরীর জন্য এক চামচ মধু নিয়ে তার সাথে হাফ চামচ লেবুর রস মিশিয়ে নিন। এবার মিশ্রনটি পুরো মুখে লাগিয়ে শুকিয়ে যাওয়া পর্য়ন্ত অপেক্ষা করুন। এবার ভাল ভাবে ঠান্ডা পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন।  এই মিশ্রনটি সপ্তাহে এক বা দুই দিন ব্যবহার করতে পারেন। 

আরো পড়ুন – মধু দিয়ে ত্বক ফর্সা করার উপায়

ত্বক পরিষ্কার করতে:

যারা নিয়মিত বাইরে যান অথবা ত্বক পরিষ্কার করার সুযোগ পান না। তারা লেবু দিয়ে ত্বক পরিষ্কার করতে পারেন। মধুর সাথে কাচা দুধ, কাচা হলুদ বেটে মিশিয়ে নিন। এবার মধু, লেবু ও হলুদ মিশিয়ে পেষ্ট করে নিন। এবার পেষ্টটি পুরো মুখে লাগিয়ে কিছুক্ষন অপেক্ষা করে ঠান্ডা পানি দিয়ে ভালোভাবে ধুয়ে  ফেলুন। 

ব্রন ও ব্রনের দাগ দূর করতে:

ব্রন ও ব্রনের দগ দূর করতে লেবু ও চালের আটা ব্যবহার করতে পারেন। অল্প চালের আটা নিয়ে তার সাথে হাফ চামচ লেবুর রস মিশিয়ে ভালভাবে পুরো মুখে লাগিয়ে নিন। কয়েক  মিনিটে পরে পুড়ো মুখে ধুয়ে নিন। ধোয়ার সময় আস্তে আস্তে পুরো মুখ বৃত্তাকারে ম্যাসাজ করুন। এতে ত্বকে জমে থাকা ময়লা দূর হবে এবং ব্রন হওয়ার প্রবনতা কমে যাবে৷ কারন ত্বকে ময়লা থেকেই সাধারণত ব্রন ওঠে। এই প্যাকটি ব্রন প্রবনতা হ্রাস করার পাশাপাশি ব্রনের দাগ দূর করবে এবং ত্বক উজ্বল করতে সাহায্য করবে।

হাত ও পায়ের ত্বক ফরসা করতে:

অনেকেই আছে মুখ অনেক ফরসা হলেও হাত পায়ের রং এত ফরসা নয়। তারা লেবু দিয়ে খুব সহজেই রুপচর্চা করতে পারেন। প্রায় সবাই জানেন যে বেসন ত্বকের ময়লা দূর করে। লেবু আর বেসন এবং অল্প পানি দিয়ে একটি পেষ্ট বানিয়ে হাতে ও পায়ে লাগাতে হবে। শুকিয়ে যাওয়া পর্যন্ত অপেক্ষা করুন। এভাবে সপ্তাহে তিন দিন ব্যবহার করতে হবে। কিছুদিন পরেই আপনার হাত ও পা ফরসা হওয়া শুরু হবে।

স্ক্রাবার হিসেবে লেবু ও চিনি:

ময়লা ও ব্ল্যাক হেডস দূর করতে খুব ভাল ভাবে কাজ করে লেবু ও চিনি। অল্প পরিমান লেবুর রসের সাথে চিনি নিয়ে এটি মুখে লাগিয়ে আলতো করে ঘসুন। এতে মুখ থেকে সাদা সাদা ময়লা গুলো উঠে যাবে সেই সাথে মরা চামড়াও উঠে যাবে। ফলে ত্বক ফরসা ও উজ্বল হবে।

হাত ও নখের দাগ দূর করতে:

অনেক মেয়েরাই আছেন যাদের প্রতিদিন রান্না করতে হয়। সবজির কালো দাগ হাতে লেগে হাত খুব বিশ্রি হয়ে যায়। তাদের জন্য লেবু গুরুত্বপূর্ণ ভুমিকা পালন করতে পারে। লেবুর রস দিয়ে খুব সহজেই কালো দাগ ওঠানো যেতে পারে। হাতে লেবুর রস নিয়ে কিছুক্ষণ ম্যাসাজ করুন দাগ দূর হয়ে যাবে।

লেবুর খোসা দিয়ে রুপচর্চা 

লেবুর রসের সাথে লেবুর খোসাও রুপচর্চায় সমান ভাবে ব্যবহার হয়ে আসছে প্রাচীন কাল থেকে। লেবুর খোসা ত্বকের ময়লা দূর করে, ত্বক উজ্বল করে, ব্রন ও মেছতার দাগ দূর করে।

ত্বকের ময়লা দূর করতে:

ত্বকের ময়লা দূর করতে লেবুর খোসা দুই ভাবে ব্যবহার করা যেতে পারে। শুকিয়ে এবং কাচায় ব্যবহার করে। লেবুর খোসা কাচায় ব্যবহার করতে চাইলে লেবু থেকে রস বের করে নিতে হবে। এবার লেবুর খোসায় অল্প পরিমান চিনি নিয়ে আস্তে আস্তে মুখে ঘসুন। এবার পনের মিনিট অপেক্ষা করুন এবং ঠান্ডা পানি দিয়ে ভালভাবে মুখ ধুয়ে ফেলুন। 

লেবুর খোসা শুকনো অবস্থায় ব্যবহার করতে চাইলে লেবু ব্যবহার করার পর ভালভাবে খোসা রোদে শুকিয়ে গুড়ো করে নিন। লেবুর খোসার গুড়ো ও অল্প পরিমান মধু ও পানি দিয়ে পেষ্ট বানিয়ে মুখে লাগিয়ে নিন। কয়েক মিনিট রাখার পর মুখ ধুয়ে ফেলুন। লেবুর খোসা ত্বকের দাগ দূর করবে এবং ত্বক ফরসা করবে।

মেছতার দাগ দূর করবে:

মেছতা ও ব্রনের দাগ দূর করতেও লেবুর খোসা সাহায্য করে। লেবুর খোসার সাথে অল্প পরিমান কাচা দুধ মিশিয়ে মুখে লাগিয়ে নিন। শুকিয়ে গেলে ঠান্ডা পানি দিয়ে ভালভাবে মুখ ধুয়ে নিন।

আরো পড়ুন – ব্রন দূর করার উপায়

লেবু দিয়ে চুলের পরিচর্যা

লেবু দিয়ে চুলের পরিচর্যা
লেবু দিয়ে চুলের পরিচর্যা

লেবু দিয়ে শুধু ত্বকের পরিচর্যা নয় পাশাপাশি চুলের যত্ন নিতেও লেবু সমান ভূমিকা পালন করে। লেবু চুল পরা বন্ধ করে, চুলের খুশকি দূর করে এবং রুক্ষ চুলকে সিল্কি করে।

চুল পরা বন্ধ করতে লেবু:

চুল মেয়েদের সৌন্দর্য বাড়াতে সাহায্য করে। আর তাই চুল পরলে চিন্তার শেষ থাকেনা। চুল পরা বন্ধ করতে লেবু গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। একটি আস্ত লেবুর রস বাটিতে নিন। এবার লেবুর রসের সাথে শ্যাম্পু মেথি গুড়ো মিশিয়ে নিন। ভাল ভাবে চুলে লাগিয়ে ৩০ মিনিট অপেক্ষা করুন। এবার ভাল কোনো শ্যাম্পু দিয়ে ভাল করে চুল ধুয়ে ফেলুন। সপ্তাহে এক বা দুই দিন ব্যবহার করলে চুল পরা বন্ধ হয়ে যাবে।

খুশকি দূর করে:

খুশকি হওয়া  খুব বিশ্রি এবং অস্বস্তিকর একটি ব্যপার। যাদের চুলে খুশকি সমস্যা রয়েছে তাদের মাথায় অসহ্য চুলকানি হয় এবং চুল ঝরে পরে। খুশকি দূর করার জন্য নিয়মিত শ্যাম্পুর সাথে লেবুর রস মিশিয়ে নিন এটি খুশকি দূর করবে এবং  একই সাথে প্রাকৃতিক কন্ডিশনার হিসেবে কাজ করবে।

চুল সিল্কি ও ঝলমলে করে:

চুল সিল্কি ও ঝলমলে করার জন্য লেবুর রস অনেক উপকারী। লেবুর রসের সাথে এক কাপ পরিমান টক দই মিশিয়ে নিন। এবার মাথায় এই প্যাকটি ভালভাবে লাগিয়ে আধা ঘন্টা অপেক্ষা করুন। তারপর ভালভাবে মাথা ধুয়ে নিন। এই প্যাক ব্যবহারে চুলে ব্যাকটেরিয়া থাকলে সেটি দূর হবে এবং চুল পরা বন্ধের পাশাপাশি চুলকে ঝলমলে উজ্বল ও সিল্কি করবে।

চুলের গোড়া শক্ত করে:

ডিমের সাদা অংশ ও লেবুর রস মিক্স করে চুলে ব্যবহার করলে চুলের গোড়া শক্ত ও মজবুত হয়, চুলের উজ্বলতা বৃদ্ধি করে। এই প্যাকটি বানাতে একটি লেবুর রসের সাথে ডিমের সাদা অংশ ভালভাবে ব্লেন্ড করে নিতে হবে। তারপর মাথায় দিয়ে শুকিয়ে যাওয়া পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হবে। শুকিয়ে গেলে ভালভাবে ধুয়ে নিতে হবে। চুলের গোড়া শক্ত করতে লেবুর এই প্যাকটি সপ্তাহে দুই দিন পর পর ব্যবহার করতে পারেন।

আরো পড়ুন – চুল পড়া বন্ধ করার উপায়

লেবু ব্যবহারে সতর্কতা:

  • হার্বস আয়ুর্বেদিক স্কিন কেয়ার ক্লিনিকের আয়ুর্বেদিক রূপবিশেষজ্ঞ আফরিন মৌসুমী বলেন, লেবু সব ত্বকের জন্য উপযোগী নয় তাই লেবু ব্যবহার করার সময় ত্বকের ধরন বুঝে ব্যবহার করতে হবে। 
  • কখনোই শুধু লেবু ত্বকে দেয়া যাবে না এতে ত্বক পুড়ে যেতে পারে। লেবু দেয়ার পর কখনোই কিচেনে বা সূর্যের আলোতে যাওয়া যাবেনা। তাই দিনের বেলা লেবু না দেয়াই ভাল।
  • শুধু লেবুর রস কখনো ব্যবহার করা যাবেনা ত্বকের ক্ষতি হতে পারে।

পরিশেষ

‘পুকুরধারে লেবুর তলে

থোকায় থোকায় জোনাক জ্বলে

ফুলের গন্ধে ঘুম আসে না একলা জেগে রই।’

লেবু নিয়ে লিখতে লিখতে মনে পরে গেল যতীন্দ্র মোহন বাগচির এই বিখ্যাত কবিতাটি। লেবু আমাদের সাথে এতটাই জরিয়ে আছে যে লেবু নিয়ে রয়েছে অনেক ছড়া এবং কবিতা। লেবু থেকে উপকার পেতে হলে লেবু সঠিক ভাবে সঠিক সময়ে ব্যবহার করতে হবে৷ তবেই পাওয়া যাবে লেবুর উপকারিতা।  সঠিক ব্যবহার না জানলে উপকারের চেয়ে অপকার হওয়ার সম্ভাবনাই বেশি থাকে। তাই লেবু ব্যবহার করার আগে ভালভাবে জেনেশুনে সঠিক নিয়মে লেবু ব্যবহার করতে হবে। চর্মরোগ বিশেষজ্ঞ উৎপল রায় বলেন, লেবু নিয়মিত খেলে বেশি উপকার পাওয়া যায়। খাওয়ার ফলে ভেতর থেকে ত্বক পরিষ্কার করে। তাই লেবু ব্যবহার করার পাশাপাশি নিয়মিত খেতে হবে।

Related Post

খুশির স্ট্যাটাস

200+ স্টাইলিশ খুশির স্ট্যাটাস | হাসি নিয়ে ক্যাপশন

খুশির স্ট্যাটাস | হাসি নিয়ে ক্যাপশন জীবনের সুন্দর খুশির মুহূর্ত আমরা সবাই বাঁধাই করে রাখতে চাই। আর এই খুশির মুহূর্তকে ধরে রাখার সবচেয়ে সহজ উপায়

Read More »
❤love status bangla | ভালোবাসার ছন্দ | রোমান্টিক ছন্দ | প্রেম ছন্দ স্ট্যাটাস❤

স্টাইলিশ ভালোবাসার ছন্দ | রোমান্টিক ছন্দ | Love Status Bangla

❤❤ভালোবাসার ছন্দ | ভালোবাসার ছন্দ রোমান্টিক | ভালোবাসার ছন্দ স্ট্যাটাস❤❤ ভালোবাসা হলো এক অন্যরকম অনুভূতির নাম, যা শুধুমাত্র কাউকে ভালবাসলেই অনুভব করা যায়। আমরা বিভিন্নভাবে

Read More »
মন খারাপের স্ট্যাটাস

মন খারাপের স্ট্যাটাস, উক্তি, ছন্দ, ক্যাপশন, কিছু কথা ও লেখা

মন খারাপের স্ট্যাটাস মন খারাপ – এই কষ্টের অনুভূতি কার না হয়? সবারই কখনো না কখনো সবারই মন খারাপ হয়। জীবনের ছোটোখাটো অঘটন থেকে শুরু

Read More »
রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের প্রেমের উক্তি

রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের প্রেমের উক্তি

রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের প্রেমের উক্তি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরকে বলা হয় বিশ্বকবি। তিনি ছিলেন একজন বিচক্ষণ ও গুনী লেখক। প্রেম চিরন্তন এবং সত্য। রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর বাঙালীর মনে প্রেমের

Read More »
ব্রেকআপ স্ট্যাটাস বাংলা

ব্রেকআপ স্ট্যাটাস বাংলা | Breakup Status Bangla

ব্রেকআপ স্ট্যাটাস বাংলা আপনি কি আপনার প্রিয়জনের সাথে সম্পর্ক থেকে বের হয়ে এসেছেন? আর সেটা আপনি কোন ব্রেকআপ স্ট্যাটাস বাংলা মাধ্যমে বোঝাতে চাচ্ছেন। তাহলে আপনি

Read More »

Leave a Comment

Table of Contents