Dreamy Media BD

বান্দরবান জেলার সেরা রিসোর্ট / হোটেল

বান্দরবান জেলার সেরা কয়েকটি রিসোর্ট হোটেল

বান্দরবান- সবুজ পাহাড়ের সৌন্দর্যে আচ্ছন্ন বাংলাদেশেরই এক অপরূপ সুন্দর জেলা।
পাহাড় ভালোবাসে না -এমন মানুষ হয়তো খুঁজে পাওয়া যাবে না। উঁচু-নিচু সবুজ পাহাড়ে মেঘের হাতছানিতে সাড়া দিয়ে সারা বছর পর্যটকদের ভীড়ে জমজমাট থাকে এই পার্বত্য জেলা বান্দরবান। কাছ থেকে পাহাড় আর মেঘের ছুঁয়ে যাওয়া লুকোচুরি খেলা উপভোগ করে তারা প্রাণ ভরে।

শুধু পাহাড় নয়, বাংলাদেশের সর্বোচ্চ শৃঙ্গ, ঝর্ণা, লেক বলুন, বা বলুন ঐতিহ্যবাহী ধর্মীয় উপাসনালয় কিংবা পর্যটন কেন্দ্র পাবেন না এখানে! প্রকৃতি যেন তার সবটুকু সৌন্দর্য নিয়ে আছড়ে পরেছে এখানে। তার সৌন্দর্যের অবারিত লীলা ছড়িয়ে পরেছে চারদিক।
তবে যে যা-ই বলুক না কেনো, কম সময়ের মধ্যে বান্দরবানের সকল দর্শনীয় স্থানে ভ্রমন করা কিন্তু সম্ভব না কখনোই। তাই বান্দরবানের সৌন্দর্য উপভোগ করতে পর্যটকদের অবলীলায় রাত্রি যাপন করতে হয় বান্দরবানের নানা রিসোর্ট কিংবা হোটেলে।

আর তাই আপনাদের সুবিধার্থেই আজকের এই আর্টিকেলে আমরা আপনাদেরকে অবগত করবো বান্দরবানের বিভিন্ন রিসোর্ট এবং হোটেলের নাম, সেগুলোর অবস্থান, ভাড়া, শহর থেকে দূরত্বসহ অন্যান্য প্রয়োজনীয় তথ্য দিয়ে।

 

১.সাইরু হিল রিসোর্ট:

সাইরু হিল রিসোর্ট
সাইরু হিল রিসোর্ট বান্দরবান

বাংলাদেশের সব থেকে আকর্ষনীয় এবং সুন্দর যে রিসোর্টগুলো আছে, তার মধ্যে অন্যতম একটি হচ্ছে বান্দরবানের সাইরু হিল রিসোর্ট। যেটির দেখা মেলে চিম্বুক পাহাড়ে যাবার পথে এবং এটি বান্দরবান জেলা হতে মাত্র ১৮ কিলো দূরে অবস্থিত। শুধু তাই নয়, এটি সবার্ধিক এক্সপেন্সিভও বটে। চারপাশের প্রকৃতি আর নিপুণ সুন্দর স্থাপত্য কৌশলে এর বিলাসবহুল অবকাশ যাপন পর্যটকদের আনন্দ দেয়। তাছাড়াও আতিথিয়তায় এই সাইরু হিল রিসোর্টটি তাদের এখানে আসা পর্যটকদেরকে বিমুগ্ধ করে রাখে। এই রিসোর্টটি তে ফ্যামিলি, হানিমুনসহ সকল প্যাকেজ রয়েছে। এমনকি এই রিসোর্টটি কিড-ফ্রেন্ডলিও।

এবার খরচের কথায় আসি। এই সাইরু হিল রিসোর্টটির এক্সিকিউটিভ, প্রিমিয়াম, সাঙ্গু ভিউ এবং সাঙ্গু ভিউ সাথে ছাদ নামের কটেজগুলোতে রাত্রিযাপন করতে আপনার খরচ করতে হবে ১১ হাজার থেকে ২১ হাজার টাকা।

সুবিধাসমূহ:
• সুইমিং পুল
•ডিসকাউন্ট
•রেস্টুরেন্ট
•২৪ ঘন্টা রুম সার্ভিস
•গো-কার্ট
•ফ্রি ওয়াইফাই
•ফ্রি ব্রেকফাস্ট
•ফ্রি পার্কিং
•এয়ার কন্ডিশনিং রুম

ঠিকানা: বারো মাইল, চিম্বুক রোড, বান্দরবান
ফোন:01847-417301

 

২. ফরেস্ট হিল রিসোর্ট :

বান্দরবান শহর থেকে মাত্র ৩ কিলোমিটার দূরে
মিলন ছড়ি রোডে অবস্থিত সবুজে ঘেরা ফরেস্ট হিল রিসোর্টটি যেনো প্রকৃতির ছায়ায় স্বযত্নে গড়ে উঠেছে।
প্রকৃতির অপরূপ সাজে সজ্জিত এই রিসোর্টের চারপাশটা চোখ জুড়ানো সুন্দর সবুজ পাহাড় আর সাদা মেঘের লুকোচুরিতে এক অন্যরকম মায়াময় রূপ ধারণ করে থাকে। রিসোর্টটির প্রতিটি রুমে আপনি কফি তৈরির সরঞ্জাম পাবেন। অপরূপ সৌন্দর্যে ঘেরা এই রিসোর্টটির চারপাশে আর-ও আছে ফুল ও ফল গাছে ঘেরা। এখানে আসলে আপনার মনে হবে প্রকৃতি তার সমস্ত সৌন্দর্য যেনো এখানেই ঢেলে দিয়েছে। রিসোর্টটির প্রতিটি রুমে আপনি কফি তৈরির সরঞ্জাম পাবেন। এর বারান্দায় দাঁড়িয়ে কফি পান করতে করতে আপনি রিসোর্টের আসে পাশের সুন্দর ভিউ উপভোগ করতে পারবেন। ঠিক যেনো এক শান্তির পরশ আপনার গা ছুঁয়ে যাবে।

ফরেস্ট হিল রিসোর্টটির ফ্যামিলি স্যুইট, ডিলাক্স স্যুইট, ডিলাক্স কটেজ,সুপার ডিলাক্স কটেজের কোন একটিতে রাত্রি যাপন করতে চাইলে আপনাকে ব্যয় করতে হবে ৩০০০ টাকা থেকে ১০,০০০ টাকা।

সুবিধাসমূহ:
•২৪ ঘন্টা রুম সার্ভিস
•ফ্রি ওয়াই ফাই
•রেস্টুরেন্ট
•ফ্রি পার্কিং ব্যবস্থা
•মাউন্টেন ভিউ ব্যালকনি
•পেট ফ্রেন্ডলি
•চাইল্ড ফ্রেন্ডলি

ঠিকানা: মিলন ছড়ি রোড, বান্দরবান 4600
ফোন:

 

৩.নীলগিরি হিল রিসোর্ট:

নীলগিরি হিল রিসোর্ট
নীলগিরি হিল রিসোর্ট বান্দরবান

বাংলাদেশের বান্দরবান জেলায় সমুদ্রপৃষ্ঠ হতে প্রায় দুই হাজার চারশ ফুট উপরে নীলগিরি পাহাড়চূড়ায় অবস্থিত একটি জনপ্রিয় পর্যটন কেন্দ্র হচ্ছে এই নীলগিরি হিল রিসোর্টটি। সমুদ্রপৃষ্ঠ হতে এতো উচ্চতায় অবস্থানের কারণে এই রিসোর্টটির চার পাশে সর্বদাই মেঘের আনাগোনা চলে। আর এটাই হচ্ছে এই নীলগিরি হিল রিসোর্টটির বিশেষ আকর্ষণ।
প্রকৃতির সৌন্দর্যে অসম্ভব রূপে সাজানো গোছানো, ছিমছাম এই রিসোর্টটি থেকে আপনি রাতে জ্যোৎস্না দেখার এক অপূর্ব অভিজ্ঞতা আহরণ করতে পারবেন। এছাড়া চারদিকে শুভ্র মেঘের উড়াউড়িও নিঃসন্দেহেই আপনাকে বিমোহিত করবে। এই রিসোর্টটি অত্যাধিক আকর্ষনীয়। ফলে আগে থেকে বুকিং দিয়ে রাখতে হয়। নাহলে পাওয়া যায় না। আর যদি ছুটির দিন হয় তাহলে তো কথাই নেই। কয়েকদিন আগে থেকেই বুকিং দিয়ে রাখতে হবে।

নীলগিরি হিল রিসোর্টে আকাশলীনা, মেঘদূত, মারমা, ইখিয়াই, ইনছায়া,মারুইপ্রে, মরুইফং, নীলাঞ্জনা নামের ছোট-বড় মোট মিলে ৮ টির মতো কটেজ রয়েছে। আর কটেজগুলোতে থাকতে আপনার খরচ পরবে ৮০০০ টাকা।

সুবিধাসমূহ:
•ফ্রি পার্কিং
•ফ্রি ব্রেকফাস্ট
•ওয়াই ফাই
•এয়ারকন্ডিশনিং রুম
•পোষা প্রাণী রাখা যায়
•রেস্টুরেন্ট
•২৪ ঘন্টা রুম সার্ভিস
•কিড-ফ্রেন্ডলি

ঠিকানা:নীলগিরি, বান্দরবান-থানচি রোড
ফোন:01769-299999

 

৪. নীলাচল নীলাম্বরী রিসোর্ট:

নীলাচল নীলাম্বরী রিসোর্ট- সমুদ্র পৃষ্ঠ হতে প্রায় এক হাজার ছয়শ ফুট উচ্চতায় অবস্থিত অন্যতম আকর্ষনীয় একটি রিসোর্ট। যেটি বান্দরবান জেলা শহর হতে খুব বেশি নয়, মাত্র ছয় কিলো দূরে নীলাচল পর্যটন কেন্দ্রে অবস্থিত। নীলাচল পর্যটন কেন্দ্রে বেড়াতে আসা পর্যটকদের খুবই পছন্দের একটি রিসোর্ট এটি। যেখান থেকে আপনি সাঙ্গু নদী আর ওই দূরের বান্দরবান শহরটি পাখির চোখে সুন্দর ভাবে অবলোকন করতে পারবেন। শুধু বর্ষা নয়, যে কোনো ঋতুতেই মেঘেদের আনাগোনা থাকে এখানে। আপনি হাত বাড়ালেই স্পর্শ করতে পারবেন সাদা তুলতুলে মেঘগুলোকে।
আকর্ষনীয় এই নীলাচল পর্যটন কেন্দ্রে বেড়াতে আসা পর্যটকদের রাত্রি যাপনের জন্যেই তৈরী করা হয়েছে সুন্দর সুশৃঙ্খল এই নীলাচল নীলাম্বরী রিসোর্ট। একটা মজার ব্যপার হলো যে, নীলাচল পর্যটন কেন্দ্র সাধারণ পর্যটকদের জন্যে স্টে করার অনুমতি থাকে শুধুমাত্র সূর্যাস্ত পর্যন্ত, কিন্তু এই রিসোর্টের অতিথিদের জন্য সব সময়ই খোলা থাকে নীলাচল।

নীলাচল নীলাম্বরী রিসোর্টের তিনটি কটেজে রয়েছে মোট ছয়টি কক্ষ এবং সবগুলো কক্ষই কাপল রুম। তবে আপনি চাইলে অর্থের বিনিময়ে এক্সট্রা বেডের সুবিধাও পেতে পারেন। তবে খরচের দিকে, নীলাচল নীলাম্বরী রিসোর্টে রাত্রি যাপনের জন্যে প্রতিটি রুমের জন্যে ভাড়া দিতে হয় ৩ হাজার টাকা করে।

সুবিধাসমূহ:
•২৪ ঘন্টা রুম সার্ভিস
•ফ্রি পার্কিং
•ফ্রি ওয়াই ফাই
•ফ্রি ব্রেকফাস্ট
•কিড ফ্রেন্ডলি
•রেস্টুরেন্ট
•কিচেন এটাচ রুম
•ফুল সার্ভিস লন্ড্রি

ঠিকানা: পর্যটন কমপ্লেক্স, নীলাচল রোড,
বান্দরবান 4630
ফোন: 01551-444000

 

৫. মিলনছড়ি হিলসাইড রিসোর্ট:

মিলনছড়ি হিলসাইড রিসোর্ট
মিলনছড়ি হিলসাইড রিসোর্ট

মিলনছড়ি হিলসাইড রিসোর্টটির অবস্থান হলো বান্দরবান হতে চিম্বুক যাওয়ার রাস্তা থেকে ৪ কিলোমিটার হাঁটা পথ। ব্যাস! তাহলে আপনি পেয়ে যাবেন সুন্দর এই রিসোর্টটি। রিসোর্টটির সাজানো গোছানো সুন্দর পরিপাটি পরিবেশ পর্যটকদের মুগ্ধ করে। চারদিকের প্রকৃতির অবারিত সৌন্দর্য রিসোর্টটিকে অনন্য করে তুলেছে।

হিলসাইড রিসোর্টটির রয়েছে নিজস্ব নির্মানশৈলী এবং ইউনিক নান্দনিক বিল্ডিং। যেটি এই রিসোর্টিকে এনে দিয়েছে বিশেষ স্বতন্ত্রতা। এর দিগন্ত জুড়ে সবুজের খেলা আর তার সাথে সাঙ্গু নদীর এঁকে বেঁকে ছুটে চলা প্রকৃতিপ্রেমী পর্যটকদের মনকে সহজেই ভরিয়ে তোলে অপূর্ব এক প্রশান্তির আভাসে। এছাড়াও আপনি যদি বান্দরবানের জনপ্রিয় অথেন্টিক আদিবাসী খাবার খেতে চান, তাহলে নিঃসন্দেহেই ঢু মারতে পারেন হিলসাইড মিলনছড়ি রিসোর্টে। আর এখানে রুম বুকিং দিলে আপনাকে বান্দরবান শহর থেকে রিসোর্টে যাতায়াতের জন্য বাড়তি কোনো টেনশনও কিন্তু করতে হবে না।

এবার খরচের দিকটা বললে, হিলসাইড রিসোর্টের ডরমেটরিতে ৬ থেকে ১০ জনের রাত্রি যাপনের জন্যে জনপ্রতি ভাড়া দিতে হবে ৯০০ টাকা। তাছাড়া রিসোর্টের অন্য সব এসি, নন-এসি রুমের ভাড়া পরবে ২৫০০ থেকে ৫৬০০ টাকা পর্যন্ত।

সুবিধাসমূহ:
•২৪ ঘন্টা রুম সার্ভিস
•ফ্রি পার্কিং
•ফ্রি ওয়াই ফাই
•ফ্রি ব্রেকফাস্ট
•চাইল্ড ফ্রেন্ডলি
•রেস্টুরেন্ট
•ফুল সার্ভিস লন্ড্রি

ঠিকানা: বান্দরবান-থানচি রোড, বান্দরবান 6400
ফোন: 01777739289

 

৬.হোটেল গ্রীনল্যান্ড:

হোটেল গ্রীনল্যান্ড
হোটেল গ্রীনল্যান্ড

হোটেল গ্রীনল্যান্ড অবস্থিত বান্দরবান শহরের পোস্ট অফিসের কাছেই। আপনাদের কম খরচে এবং শহরের পরিবেশের মধ্যেই থাকতে চান, তারা চাইলে অনায়েসেই এই হোটেল গ্রীনল্যান্ডকে বেছে নিতে পারেন। এখানে আপনি ফ্যামিলি রুমের ব্যবস্থা পাবেন।

হোটেল গ্রীনল্যান্ডে রাত কাটাতে চাইলে আপনাকে খরচ করতে হবে সর্বনিন্ম ১৫০০ টাকা থেকে সর্বোচ্চ ৩০০০ টাকা পর্যন্ত। অর্থাৎ অন্যান্য হোটেল গুলোর তুলনায় খুবই কম খরচে আপনি এখানে থাকতে পারবেন।

সুবিধাসমূহ:
•কনফারেন্স রুম
•জেনারেটর সার্ভিস
•চিকিৎসা সেবা
•পরিবহন ব্যবস্থা
•নিরাপত্তা ব্যবস্থা
•কিড ফ্রেন্ডলি
•রুম সার্ভিস
•ওয়াই ফাই

ঠিকানা:হেড পোস্ট অফিসের পাশে, চিম্বুক রোড, বান্দরবান পার্বত্য জেলা-4600,বান্দরবান, বাংলাদেশ
ফোন:01810-058005

 

৭. ভেনাস রিসোর্ট:

ভেনাস রিসোর্ট রিসোর্ট বান্দরবান
ভেনাস রিসোর্ট রিসোর্ট বান্দরবান

ভেনাস রিসোর্ট- বাংলাদেশের বান্দরবান জেলার মেঘলা পর্যটন কেন্দ্রের খুব কাছেই যার অবস্থান।
প্রকৃতির অসীম সৌন্দর্য ঢেলে দিয়েছে যার আঙিনায়।
এখানে মুক্ত বাতাস এসে শান্তির পরশ বুলিয়ে যায় সানন্দে। আর বৃষ্টিস্নাত রিসোর্টটি আর এক অপরূপ গন্ধ বিলোয়। সবুজ পাহাড়ের চূড়ায় এ রিসোর্টটির রয়েছে ৫টি সুন্দর ও আধুনিক কটেজ। অপরুপ প্রকৃতির লীলাময় সৌন্দর্যের মাঝে শিল্প ও সৃজনশীলতার এক অনন্য নিদর্শন হিসাবে ছোট বড় বেশকিছু ভাস্কর্য দিয়ে সুন্দর করে সাজিয়ে তোলা হয়েছে এই ভেনাস রিসোর্টকে। আর ভেনাস রিসোর্টের রেস্টুরেন্টের আপনি পাবেন দেশি বিদেশি নানা পদের বাহারি সব খাবার আয়োজন। যার জন্যে পর্যটকদের মনে ঠাই করে নেয় এ রিসোর্টটি।

খরচের কথায় আসলে, প্রকৃতির মাঝে নিজেকে সুন্দর ভাবে মেলে ধরা শিল্পে বৈচিত্র এই ভেনাস রিসোর্টে ডিলাক্স, সুপার ডিলাক্স, স্যুইট রুম, কাপল বেড, টুইন বেড(এসি কটেজ), কটেজ স্যুইট ইত্যাদি বিভিন্ন ক্যাটাগরি চালু আছে। এই সকল ক্যাটাগরির যে কোন একটিতে বুকিং দিতে চাইলে আপনাকে খরচ করতে হবে ৩৮০০ টাকা থেকে ১৫০০০ টাকা পর্যন্ত।

সুবিধাসমূহ:
•২৪ ঘন্টা রুম সার্ভিস
•ফ্রি ওয়াই ফাই
•ফ্রি পার্কিং
• ফ্রি ব্রেকফাস্ট
•এয়ার কন্ডিশনিং রুম
•ফুল সার্ভিস লন্ড্রি
•রেস্টুরেন্ট
•চাইল্ড ফ্রেন্ডলি
•ভ্যালেট পার্কিং
• লোকাল শাটল
•এয়ারপোর্টে শাটল( এক্সট্রা চার্জসহ)

ঠিকানা: ভেনাস রিসোর্ট, মেঘলা, বান্দরবান 4600
ফোন: 01552-808000

 

৮. হোটেল নাইট হেভেন :

আধুনিক সকল সুযোগ সুবিধা সম্পন্ন এই হোটেল নাইট হেভেনটি বান্দরবান শহর হতে কেবল ৫ কিলোমিটার দূরে মেঘলা পর্যটন কেন্দ্রের কাছেই অবস্থিত। সবুজের সমারোহে আচ্ছন্ন এই হোটেলটির প্রাকৃতিক পরিবেশ যেমন মুগ্ধকর, ঠিক তেমনি হোটেলের ভেতরটাও অত্যাধুনিক ভাবে সুন্দর করে সাজানো। প্রকৃতিপ্রেমী মানুষ যারা পাহাড়ের কোলে মেঘের লুকোচুরি আর বৃষ্টি ভেজা মোহনীয় সৌন্দর্যের পাহাড়ের অপরূপ ভিউ দেখার জন্যে আকুল আগ্রহে প্রহর গুনে যাচ্ছেন, তাদের জন্যে একদম সঠিক জায়গা এটি। শুধু তাই নয় কিন্তু, আপনারা যারা বন্ধু বান্ধব ও পরিবার আত্মীয় স্বজনদের নিয়ে বান্দরবান ভ্রমনের কথা চিন্তা করছেন, তাদের জন্যেই হোটেল নাইট হেভেন সম্পূর্ণ প্রস্তুত অনন্য এক নতুন আঙ্গীকে।

পর্যটকদের খুবই পছন্দের এই হোটেল নাইট হেভেন এ রয়েছে আধুনিক সব ডেকোরেশন সম্বলিত হিল ভিউ রুমের সুব্যবস্থা। এ ছাড়া আপনারা যারা ফ্যামিলি নিয়ে একসাথে থাকতে চান রিসোর্টে, তাদের জন্যে রয়েছে কিন্তু সুন্দর নিরাপত্তা বেষ্টিত কানেক্টিং রুম। তা ছাড়াও এখানে আপনি পাবেন স্বাস্থ্য সম্মত খাবারের নিশ্চয়তা নিয়ে তাদের সম্পূর্ণ নিজস্ব রেস্তোরাঁও। আর হোটেল নাইট হেভেনে প্রয়োজন অনুসারে আপনি সর্বোচ্চ ৫০ জনের যে কোনো ইভেন্ট বা সেমিনার আয়োজনও করতে পারবেন সহজেই।

এবার আসা যাক খরচের ব্যপারে। হোটেল নাইট হেভেনে এসি, নন-এসি, স্ট্যান্ডার্ড টুইন নন-এসি, ফোর বেড নন-এসি এবং স্যুইট ইত্যাদি মোট ৫ ক্যাটাগরির রুমের যে কোনো একটিতে থাকতে চাইলে আপনাকে ভাড়া গুনতে হবে ২২০০ টাকা থেকে ৫৫০০ টাকা পর্যন্ত।

অন্যান্য সুবিধাসমূহ:
•২৪ ঘন্টা রুম সার্ভিস
•ফ্রি ওয়াই ফাই
• ফ্রি ব্রেকফাস্ট
•ফ্রি পার্কিং
•এয়ার কন্ডিশনিং রুম
•ফুল সার্ভিস লন্ড্রি
• রেস্টুরেন্ট
•চাইল্ড ফ্রেন্ডলি
•ভ্যালেট পার্কিং
•লোকাল শাটল
•এয়ারপোর্টে শাটল( এক্সট্রা চার্জসহ)
•ওয়েলকাম ড্রিঙ্কস
•রেন্ট কার

ঠিকানা: তালুকদার পাড়া, মেঘলা পর্যটন এরিয়া, বান্দরবান।
ফোন:01838-506697, 01838506763, 01811510141

 

৯.হোটেল হিল ভিউ:

হোটেল হিল ভিউ এর অবস্থান বান্দরবান শহরের ঠিক প্রবেশ মুখেই বাস স্ট্যান্ডের কাছে। বান্দরবান শহরের সব থেকে বড় আবাসিক হোটেলের নাম বলতে হলে হোটেল হিল ভিউ -ই চলে আসে। হোটেলটি শহরের একদম প্রবেশ মুখে হওয়ায় একটি সুবিধাও হয়েছে। তাছাড়াও অন্যান্য বেসিক সুবিধা আপনি এই হোটেলে পেয়ে যাবেন।

এসি, নন এসি সহ নানা ক্যাটাগরির রুম এই হোটেলে বর্তমান আছে। প্রতি রাতের জন্য ক্যাটাগরি ভেদে রুম এখানে আপনার খরচ পড়বে প্রায় ১৫০০ থেকে ৪০০০ টাকা পর্যন্ত।

সুবিধাসমূহ:
• ফ্রি পার্কিং
• ফ্রি ব্রেকফাস্ট
• ফ্রি ওয়াই ফাই
• রেস্টুরেন্ট
•২৪ ঘন্টা রুম সার্ভিস
•এয়ার কন্ডিশনিং রুম
• ফুল সার্ভিস লন্ড্রি
•চাইল্ড ফ্রেন্ডলি
•লোকাল শাটল
•এয়ারপোর্ট শাটল( এক্সট্রা চার্জ)
• কনফারেন্স হল

ঠিকানা: N108, বান্দরবান 4600
ফোন:01828-866000

১০. হোটেল হিল কুইন:
বান্দরবান শহরের একদম কেন্দ্রে অবস্থিত হোটেল হিল কুইন। শহরের একদম কেন্দ্রে হওয়ায় হোটেল হিল কুইনে রয়েছে ভিআইপি সাপোর্ট এবং তার পাশাপাশি মেডিক্যাল সার্ভিসও। তাছাড়া এই হোটেলটি শহরের ঠিক মধ্যে হলেও কিন্তু এর চারপাশে সবুজের ছোঁয়াও রয়েছে। বান্দরবানের আরও একটি জনপ্রিয় আবাসিক হোটেল হচ্ছে হোটেল হিলটন, যেটি হোটেল হিল কুইনের সাথে একই মালিকানা দ্বারা পরিচালিত হয়।

এই হোটেল হিল কুইনে এক রাত্রি যাপনের জন্যে আপনার রুম ভাড়া পরবে প্রায় ১২০০ টাকা থেকে ৭০০০ টাকা পর্যন্ত।

সুবিধাসমূহ:
•২৪ ঘন্টা রুম সার্ভিস
• ফ্রি পার্কিং
• ফ্রি ওয়াই ফাই
• ফুল সার্ভিস লন্ড্রি
• চাইল্ড ফ্রেন্ডলি
•কনফারেন্স রুম
•২৪ ঘন্টা বিদ্যুৎ সুবিধা
•নিজস্ব পরিবহন ব্যবস্থা

ঠিকানা: সদর রোড, বান্দরবান
ফোন:01912-782398

 

১১. বন নিবাস হিল রিসোর্ট:

বান্দরবান শহর থেকে মাত্র ৩ কিলোমিটার দূরে অবস্থিত বন নিবাস হিল রিসোর্ট। সবুজ পাহাড়ের গায়ে সুন্দর ভাবে গড়ে উঠা বান্দরবানের মিলনছড়ির অন্য আরেকটি চমৎকার রিসোর্ট হলো এই বন নিবাস হিল রিসোর্টটি। অবারিত সবুজে ঘেরা সুন্দর এই রিসোর্টটিতে রাত কাটাতে নিঃসন্দেহেই যে কারোর-ই ভালো লাগার কথা। আপনারও মন কাড়বে এই স্থানটি তার অবাধ সৌন্দর্যে।

এই বন নিবাস হিল রিসোর্টের ধনেশ, ব্যাম্বো, জোনাকি, মাথুরা, নিবাস, মনপুরা, নৌকো ডিলাক্স এবং নৌকো নামের ক্যাটাগরি থেকে প্রতি রাতের জন্যে আপনার রুম ভাড়া নিতে খরচ করতে হবে ২৫০০ টাকা থেকে ৬০০০ টাকা পর্যন্ত।

সুবিধাসমূহ:
• ফ্রি ওয়াই ফাই।
• ডিসকাউন্ট

ঠিকানা: বান্দরবান শহর হতে ৩ কিঃমিঃ দূরত্বে অবস্থিত।
ফোন:01739090099

 

১২. হোটেল রিভার ভিউ:

বান্দরবান শহরের পাশ দিয়ে এঁকেবেঁকে বয়ে যাওয়া সাঙ্গু নদীর পাড়েই গড়ে উঠেছে এই হোটেল রিভার ভিউ। পাহাড়ি নদী সাঙ্গুর সৌন্দর্য উপভোগ করতে পারবেন আপনি এই হোটেলটির রুমে কিংবা ছাদে দাঁড়িয়ে। তাছাড়াও বান্দরবান শহরের মধ্যে মোটামুটি বাজেটের একটা হোটেলে থাকার জন্যে এই হোটেল রিভার ভিউ ভালো হতে পারে। এখানে আপনি নদী আর প্রকৃতির সাথে এক হয়ে মিশে যাবেন। এ অনুভূতিটা অন্যরকম মন ছুঁয়ে যাওয়া।

এখানে থাকতে আপনাকে ১৬০০ থেকে ৬০০০ টাকা পর্যন্ত খরচ করতে হবে।

সুবিধাসমূহ:
• ২৪ ঘন্টা রুম সার্ভিস
•ফ্রি ওয়াই ফাই
• ফ্রি পার্কিং
• ফুল সার্ভিস লন্ড্রি
• ব্রেকফাস্ট
• এয়ার কন্ডিশনিং রুম
•রেস্টুরেন্ট
•হাউস কিপিং
•চাইল্ড ফ্রেন্ডলি

ঠিকানা: জনপদ রোড, বান্দরবান 4600
ফোন:01558-790797

১৩. পর্যটন মোটেল:
আমাদের দেশের প্রায় সবল পর্যটন জেলায়ই রয়েছে পর্যটন কর্পোরেশনের নিয়ন্ত্রণাধীন পর্যটন হোটেল। বান্দরবানের পর্যটন মোটেলটি বান্দরবান শহর থেকে মাত্র ৪ কিঃমিঃ দূরে মেঘলার পর্যটন কমপ্লেক্স এর কাছেই অবস্থিত। বেসিক যে সুযোগ সুবিধা, সেগুলো সহ এখানে আপনি বিভিন্ন সুযোগ সুবিধা পাবেন।

রাত্রি যাপনের জন্যে পর্যটন মোটেলে খরচ পরবে ১৫০০ টাকা থেকে ৫৪০০ টাকা পর্যন্ত।

সুবিধাসমূহ:
• ব্রেকফাস্ট
• হট এন্ড কোল্ড ওয়াটার
•টেলিফোন এন্ড টেলিভিশন

ঠিকানা: শহর থেকে ৪ কিঃমিঃ দূরে, মেঘলা পর্যটন কমপ্লেক্সের কাছে।
ফোন: 01991139026

 

১৪. হোটেল ফোর স্টার:

হোটেল ফোর স্টার, বান্দরবান বাজারে জনতা ব্যাংকের কাছেই অবস্থিত। আপনি যদি কম খরচে বান্দরবান থাকতে চান, তাহলে এটি আপনার জন্যেই। কেননা হোটেল ফোর স্টার কম মূল্যে রাত্রি যাপনের জন্য খুবই প্রসিদ্ধ৷ আপনার ভ্রমণের খরচ একদম সীমিত রাখতে আপনি মাঝারি মানের এই আবাসিক হোটেলটি কিন্তু বেছে নিতেই পারেন।

কম খরচের এই হোটেলে এক রাত থাকার জন্যে আপনার রুম ভাড়া লাগবে মাত্র ১০০০ টাকা থেকে ৩০০০ টাকা পর্যন্ত।

সুবিধাসমূহ:
•খরচ কম
•বাথরুম
•রুম সার্ভিস

ঠিকানা: ১ নং গলি রোড, বান্দরবান
ফোন:+880 361-62466

১৫. হোটেল হিলটন:
হোটেল হিলটন মূলত তাদের জন্যে আদর্শ যারা কি-না বান্দরবান শহরের খুব কাছে থাকতে আগ্রহী। এই হোটেলটি বান্দরবান শহরের বাস স্ট্যান্ডের কাছেই অবস্থিত। বেশ পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন এবং সাজানো গোছানো ছিমছাম এই হোটেলটিতে থাকতে আপনার কোনো অসুবিধা হবে না হয়তো।

এবার আসি খরচের কথায়। এ হোটেলটি মূলত বিশাল বিশাল বেড রুম বিশিষ্ট। আর এখানে রাত্রি যাপন করতে হলে আপনাকে খরচ করতে হবে ১০০০ থেকে ৪০০০ টাকা।

সুবিধাসমূহ:
•রুম সার্ভিস
•টেলিভিশন

ঠিকানা: অফিসারস ক্লাব, ইসলামপুর রোড, বান্দরবান
ফোন: 01551712111

 

১৬. হলিডে ইন রিসোর্ট :

মেঘলা পর্যটন কমপ্লেক্সের কাছেই হলিডে ইন রিসোর্ট এর অবস্থান পাহাড়ের চূড়ায়। রিসোর্টটি কে ঘিরে রয়েছে ছোট বড় সব পাহাড় আর সুদৃশ্য কিছু প্রাকৃতিক লেক। তাছাড়াও বান্দরবান শহর থেকে এর দূরত্ব খুবই কম হওয়ায় মেঘলার কাছে অবস্থানরতএই রিসোর্টে কিন্তু খুব সহজেই আসা যায়। পাহাড়ের চূড়ায় হওয়ায় আপনি এখান থেকে মেঘের আনাগোনা উপভোগ করতে পারবেন। বৃষ্টির সময় মন ভরে ঘন সতেজ সবুজের ঘ্রাণ নিতে পারবেন।

খরচের বেলায়, হলিডে ইন রিসোর্টের লেক ভিউ রুম, হানিমুন কটেজ বা ফ্যামিলি কটেজের রুম ভাড়া পরবে আপনার ৩০০০ থেকে ৭০০০ টাকা পর্যন্ত।

সুবিধাসমূহ:
•২৪ ঘন্টা রুম সার্ভিস
•ব্রেকফাস্ট
•ফ্রি পার্কিং
• ফ্রি ওয়াই ফাই
•রেস্টুরেন্ট

ঠিকানা: চট্রগ্রাম-বান্দরবান হাইওয়ে, বান্দরবান
ফোন:01553-325347

১৭. গ্রীন পিক রিসোর্ট :
সবুজে আচ্ছাদিত নির্মল প্রকৃতির কোল জুড়ে গড়ে উঠা গ্রীন পিক রিসোর্ট। বান্দরবান শহর থেকে মাত্র ৪ কিলোমিটার দূরে অবস্থিত মেঘলা পর্যটন কমপ্লেক্স থেকে এগিয়ে গিয়ে আরও আধা কিলোমিটার সামনে আগালে দেখা মিলবে এই রিসোর্টটির। বর্তমানের প্রয়োজনীয় সকল আধুনিক উপকরণে সুসজ্জিত এই রিসোর্টটি। অতিথি সেবায় গ্রীন পিক রিসোর্ট জাতীয় ও আন্তর্জাতিকভাবে সমাদৃত হয়েছে।

চোখ জুড়ানো সবুজের মোহে আচ্ছন্ন সময় কাটানোর জন্যে একদম আদর্শ এই রিসোর্টে থাকতে হলে আপনাকে খরচ করতে হবে ৩৫০০ টাকা থেকে ৫৫০০ টাকা।

সুবিধাসমূহ:
•এয়ার কন্ডিশনিং রুম
•সুইমিং পুল
•রেস্টুরেন্ট

ঠিকানা: মেঘলা( TTC এর বিপরীতে), চিটাগং-বান্দরবান হাইওয়ে
ফোন:01758544466

পরিশেষে, এখানে দেওয়া সমস্ত তথ্য উপরের রিসোর্ট ও হোটেলগুলোর ওয়েবসাইট এবং ইন্টার্নেট থেকে নেওয়া এবং সম্পূর্ণ সঠিক তথ্য দোওয়ার চেষ্টা করেছি। তাই আশা করছি আমাদের এই আর্টিকেলটি পড়ে আপনার একটু হলেও উপকারে আসবে। আপনাদের উপকার হলেই আমাদের চেষ্টা স্বার্থক হবে। মনোযোগ দিয়ে সম্পূর্ণ আর্টিকেলটি পড়ার জন্যে ধন্যবাদ।

আরো পড়ুন –

Related Post

খুশির স্ট্যাটাস

200+ স্টাইলিশ খুশির স্ট্যাটাস | হাসি নিয়ে ক্যাপশন

খুশির স্ট্যাটাস | হাসি নিয়ে ক্যাপশন জীবনের সুন্দর খুশির মুহূর্ত আমরা সবাই বাঁধাই করে রাখতে চাই। আর এই খুশির মুহূর্তকে ধরে রাখার সবচেয়ে সহজ উপায়

Read More »

স্টাইলিশ ভালোবাসার ছন্দ | রোমান্টিক ছন্দ | Love Status Bangla

❤❤ভালোবাসার ছন্দ | ভালোবাসার ছন্দ রোমান্টিক | ভালোবাসার ছন্দ স্ট্যাটাস❤❤ ভালোবাসা হলো এক অন্যরকম অনুভূতির নাম, যা শুধুমাত্র কাউকে ভালবাসলেই অনুভব করা যায়। আমরা বিভিন্নভাবে

Read More »
মন খারাপের স্ট্যাটাস

মন খারাপের স্ট্যাটাস, উক্তি, ছন্দ, ক্যাপশন, কিছু কথা ও লেখা

মন খারাপের স্ট্যাটাস মন খারাপ – এই কষ্টের অনুভূতি কার না হয়? সবারই কখনো না কখনো সবারই মন খারাপ হয়। জীবনের ছোটোখাটো অঘটন থেকে শুরু

Read More »
রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের প্রেমের উক্তি

রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের প্রেমের উক্তি

রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের প্রেমের উক্তি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরকে বলা হয় বিশ্বকবি। তিনি ছিলেন একজন বিচক্ষণ ও গুনী লেখক। প্রেম চিরন্তন এবং সত্য। রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর বাঙালীর মনে প্রেমের

Read More »
ব্রেকআপ স্ট্যাটাস বাংলা

ব্রেকআপ স্ট্যাটাস বাংলা | Breakup Status Bangla

ব্রেকআপ স্ট্যাটাস বাংলা আপনি কি আপনার প্রিয়জনের সাথে সম্পর্ক থেকে বের হয়ে এসেছেন? আর সেটা আপনি কোন ব্রেকআপ স্ট্যাটাস বাংলা মাধ্যমে বোঝাতে চাচ্ছেন। তাহলে আপনি

Read More »

Leave a Comment

Table of Contents