Dreamy Media BD

চিরতরে খুশকি দূর করার উপায়

খুশকি দূর করার উপায়

শীতকালে খুশকির প্রবণতা বেশি পরিলক্ষিত হয়। খুশকির জন্য চুলের বিভিন্ন ধরনের সমস্যা দেখা দেয়। তার মধ্যে উল্লেখযোগ্য হল: চুল ঝরে পড়া, চুলের রুক্ষতা দেখা দেওয়া এবং স্কাল্প ইনফেকশন ইত্যাদি‌। অতিরিক্ত দূষণ এবং শুষ্ক আবহাওয়া খুশকির প্রবণতা বৃদ্ধির জন্য দায়ী।

তবে নারীদের থেকে পুরুষেরা খুশকির সমস্যায় বেশি ভোগেন। খুশকির হাত থেকে পরিত্রাণ পাওয়ার জন্য বাজারে বিভিন্ন ধরনের শ্যাম্পু এবং লোশন পাওয়া যায়। 

হাতের কাছে থাকা বিভিন্ন প্রাকৃতিক উপাদান ব্যবহার করেও খুশকি নিরাময় করা সম্ভব। আসুন জেনে নেই খুব সহজে চিরতরে খুশকি দূর করার উপায় সমূহ

আরো পড়ুন –  আখরোট যেভাবে আপনার শরীর ও ত্বককে সুস্থ রাখবে!

চিরতরে খুশকি দূর করার উপায়

কিছু কিছু প্রাকৃতিক উপাদান ব্যবহার করে ঘরোয়া পদ্ধতিতে খুব সহজেই খুশকি দূর করা যায়। চিরতরে খুশকি দূর করার উপায় গুলো জেনে নেওয়া যাক:-

  • নিম তেল ও জবা ফুলের নির্যাস:

মাথার খুশকি পুরোপুরি দূর করার জন্য সপ্তাহে অন্তত তিন দিন নিম তেল মাথার স্কাল্পে ম্যাসাজ করে দেখতে পারেন। জবা ফুলের নির্যাস চুলের খুশকি দূর করতে এবং চুল কালো করতে সাহায্য করে। জবা ফুল নারিকেল তেলে গরম করে নির্যাস বের করে নিন। খাঁটি নারিকেল তেল, নিম পাতার কুচি এবং জবা ফুলের নির্যাস সপ্তাহে তিন দিন মাথার স্কাল্পে ব্যবহার করুন।

  • ভৃঙ্গরাজ:

খুশকি ক্ষেত্রে মাথার ত্বকে ভৃঙ্গরাজ ব্যবহার করতে পারেন। কারণ ভৃঙ্গরাজ কে ভেজসের রাজা বলে অভিহিত করা হয়। ভৃঙ্গরাজ মাথার ত্বকের শুষ্কতা, অকালপক্ষতা এবং খুশকি দূর করতে কার্যকর ভূমিকা পালন করে। ভৃঙ্গরাজে বিদ্যমান রয়েছে আইরন, ক্যালসিয়াম, ম্যাগনেসিয়াম সহ আরো বিভিন্ন উপকারী উপাদান।

  • মেথি:

খুশকি দূর করার ক্ষেত্রে মেথি ব্যবহার করা যেতে পারে। আপনি মাথায় যে তেল ব্যবহার করেন সেই তেলে মেথি আধভাঙ্গা করে ভিজিয়ে রাখতে হবে। মেথি যত ভিজবে মেথির কার্যকরি গুণ ততো বাড়বে।

  • অ্যালোভেরা এবং আমলকির রস:

খুশকি দূর করতে এলোভেরা এবং আমলকির রস কার্যকর ভূমিকা পালন করে। সপ্তাহে অন্তত একদিন এলোভেরা এবং মেথি একসঙ্গে মিশিয়ে একটি পেস্ট তৈরি করে মাথার ত্বকে ব্যবহার করলে ভালো ফল পাওয়া যায়। আবার এলোভেরা এবং আমলকির রস একসঙ্গে মিশিয়ে মাথায় ব্যবহার করলে খুশকি থেকে পরিত্রাণ পাওয়া সম্ভব। এটি চুল কালো এবং চুলকে স্বাস্থ্যজ্জ্বল করতে সাহায্য করে, ইত্যাদি।

  • টি ট্রি ওয়েল:

এই তেলটি শ্যাম্পু বা কন্ডিশনার এর সাথে মিশিয়ে ব্যবহার করতে পারেন। সরাসরি মাথার ত্বকে ব্যবহার করুন। সপ্তাহে দুই দিন করলে ভালো ফল পাওয়া যায়।

  • নিম পাতার গুঁড়ো:

নিম পাতার গুড়োর সাথে অলিভ অয়েল মিশিয়ে মাথার ত্বকে এক ঘন্টা লাগিয়ে রাখুন। পরবর্তীতে শ্যাম্পু দিয়ে চুল পরিষ্কার করুন। সপ্তাহে অন্তত একদিন ব্যবহার করলে ভালো ফল পাবেন।

  • আদার রস:

আদার রস এন্টি ব্যাকটেরিয়া  হিসেবে কাজ করে। আদার রস মাথার ত্বকে ৩০ মিনিট লাগিয়ে রাখুন। এবং ভালো ব্রান্ডের শ্যাম্পু দিয়ে চুল ধুয়ে ফেলুন। সপ্তাহে দুইবার ব্যবহার করতে পারেন। আপনার মাথার খুশকি সহ বিভিন্ন সমস্যা দূর হয়ে যাবে। 

  • নারিকেল তেল:‌

নারিকেল তেল চুলের গোড়া ময়শ্চারাইজ করার মাধ্যমে চুলের খুশকি দূর করে। নারিকেল তেল মাথার স্কাল্প ইনফেকশনের সম্ভাবনা কমিয়ে দেয়। সপ্তাহে অন্তত দুইবার খাঁটি নারিকেল তেল মাথার ত্বকে ম্যাসাজ করুন।

  • পেঁয়াজের রস:

মাঝারি সাইজের দুটি পেঁয়াজ ব্লেন্ড করে নিন। এক মগ পানিতে এই রস মিশিয়ে নিন‌। এই মিশ্রণটি মাথার চুলে লাগিয়ে ম্যাসাজ করুন এবং কিছুক্ষণ পর ধুয়ে ফেলুন। সপ্তাহে অন্তত দুই দিন এই মিশ্রণটি মাথায় ব্যবহার করলে খুশকি থেকে দ্রুত পরিত্রাণ পাওয়া সম্ভব।

  • টক দই:

খুশকি সমস্যা দূর করার ক্ষেত্রে টক দই খুবই কার্যকর। টক দই মাথার ত্বকে খুব ভালোভাবে লাগিয়ে নিন। ১০ মিনিট পর ভালো করে ধুয়ে ফেলুন।

  • অ্যাপেল সিডার ভিনেগার:

খুশকি দূর করার ক্ষেত্রে অ্যাপেল সিডার ভিনেগার ব্যবহার করতে পারেন। অ্যাপেল সিডার ভিনেগার এর ভিতরে থাকা উপাদান প্রাকৃতিক উপায়ে খুশকি দূর করতে সাহায্য করে।

চিরতরে খুশকি দূর করার জন্য এই উপাদান গুলো যুগ যুগ ধরে ব্যবহার করা হয়। আশা করি পুরুষ এবং নারী উভয়ের ক্ষেত্রেই এই উপাদান গুলো কার্যকর ভূমিকা পালন করবে।খুশকি দূর করার ক্ষেত্রে এগুলো খুব সাধারণ ঘরোয়া নিয়ম। তবে এই নিয়মগুলো খুশকি দূর করার ক্ষেত্রে দীর্ঘমেয়াদি ভালো ফলাফল দেয়।

খুশকি দূর করার শ্যাম্পু

খুশকি দূর করার জন্য বাজারে বিভিন্ন ভালো ব্রান্ডের শ্যাম্পু পাওয়া যায়। এই শ্যাম্পু গুলো খুশকি দূর করে এবং চুল কালো এবং ঝলমলে রাখতে সাহায্য করে। বাজারের এই খুশকি দূর করার শ্যাম্পু গুলো খুবই ভালো ফলাফল দেয় :

  • ডক্টর বাত্রা’স ক্লিনজিং শ্যাম্পু, ১০০ মি.লি. 
  • পতঞ্জলি কেশকান্তি অ্যান্টি-ড্যানড্রাফ হেয়ার ক্লিনজার, ২০০ মি.লি. 
  • হেড অ্যান্ড শোল্ডার অ্যান্টি-ড্যানড্রাফ শ্যাম্পু। খুশকি প্রতিরোধে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে।
  • বায়োটেক বায়ো মার্গোসা অ্যান্টি-ড্যানড্রাফ শ্যাম্পু অ্যান্ড কন্ডিশনার, ১৯০ মি.লি.

বর্তমান বাজারে খুশকি দূর করার জন্য যে শ্যাম্পু গুলো পাওয়া যায় এগুলো তার মধ্যে অন্যতম। এগুলো ব্যবহার করলে আশা করি খুশকি সমস্যা দ্রুত নিরাময় হবে।

খুশকি প্রতিরোধের উপায় সমূহ  

আমরা যদি নিচের নিয়মগুলো মেনে চলি তাহলে আশা করি খুশকি থেকে পরিত্রাণ পাওয়া যাবে:-

  • আপনার ব্যবহৃত চিরুনি তোয়ালে পরিষ্কার জায়গায় রাখুন।
  • নিয়মিত চুলে মেহেদী পাতা এবং টক দই ব্যবহার করতে পারেন। ৩৫ থেকে ৪০ মিনিট চুলে লাগিয়ে রাখুন। তারপর চুল ভালো করে শ্যাম্পু দিয়ে ধুয়ে নিন।
  • সপ্তাহে একদিন চুলের টক দই ব্যবহার করতে পারেন।
  • খুশকি মোকাবেলায় সাহায্য করে এমন শ্যাম্পু ব্যবহার করতে পারেন।
  • পুরনো তেতুল গুলে মাথায় লাগিয়ে রেখে কিছুক্ষণ পর ধুয়ে ফেললেও ভালো ফল পাওয়া যায়।
  • যাদের মাথায় খুশকির প্রবণতা বেশি, তারা গোসলের পর নিয়মিত শ্যাম্পু ব্যবহার করুন এবং চুল পরিষ্কার রাখুন।
  • বাইরে বের হলে ধুলাবালির হাত থেকে বাঁচার জন্য সব সময় মাথা ঢেকে রাখুন।
  • খুশকি দূর করার জন্য খাদ্যাভ্যাস পরিবর্তন করতে হবে। ত্বক সুস্থ রাখার জন্য প্রচুর পরিমাণে শাক-সবজি খেতে হবে এবং চর্বি জাতীয় খাবার ত্যাগ করতে হবে।
  • সব সময় চুল পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন রাখতে হবে। নিয়মিত চুল পরিষ্কার রাখলে খুশকির প্রবণতা অনেকাংশে কমে যায়।
  • চুল ভেজা রাখা যাবেনা। ভেজা চুল যত দ্রুত সম্ভব শুকিয়ে নিন ।
  • মেয়েরা খুশকি থেকে পরিত্রাণ পাওয়ার জন্য বাইরে গেলে মাথায় ওড়না বা স্কার্ফ জড়িয়ে রাখতে পারেন। এতে চুলে ধুলাবালি লাগবেনা এবং খুশকির পরিমাণ কমে আসবে। 
  • খাদ্যাভ্যাস পরিবর্তনের মাধ্যমেও খুশকি দূর করা সম্ভব। মাথার চুলে ঘনঘন তেল ব্যবহার করা যাবে না এবং নিয়মিত চুলের শ্যাম্পু করে চুল পরিষ্কার রাখতে।

 আশা করি, খুশকি প্রতিরোধের উপায় গুলো সম্পর্কে আপনারা বিস্তারিত জানতে পেরেছেন। উপরোক্ত নিয়ম গুলো অনুসরণ করলে খুব সহজে খুশকির সমস্যা থেকে বেঁচে থাকতে পারবেন। 

শেষ কথা

শীতকালে আমরা যেভাবে ত্বকের যত্ন নেই ঠিক সেই ভাবে চুলের যত্ন নেওয়াও জরুরী। খুশকি দূর করার জন্য বাজারে যেসব প্রোডাক্ট পাওয়া যায় তার বেশিরভাগ প্রোডাক্টটি বিভিন্ন ক্ষতিকর রাসায়নিক পদার্থ দ্বারা তৈরি। 

তাই ঘরোয়া ভাবে খুশকি থেকে পরিত্রাণের উপায় খুঁজতে হবে। আশা করি আজকের আর্টিকেলের মাধ্যমে আপনারা খুশকি দূর করার উপায় সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে পেরেছেন। আশা করি খুশকি দূর করার ক্ষেত্রে এই উপায়গুলো আপনাদের সাহায্য করবে।

 

Related Post

খুশির স্ট্যাটাস

200+ স্টাইলিশ খুশির স্ট্যাটাস | হাসি নিয়ে ক্যাপশন

খুশির স্ট্যাটাস | হাসি নিয়ে ক্যাপশন জীবনের সুন্দর খুশির মুহূর্ত আমরা সবাই বাঁধাই করে রাখতে চাই। আর এই খুশির মুহূর্তকে ধরে রাখার সবচেয়ে সহজ উপায়

Read More »
❤love status bangla | ভালোবাসার ছন্দ | রোমান্টিক ছন্দ | প্রেম ছন্দ স্ট্যাটাস❤

স্টাইলিশ ভালোবাসার ছন্দ | রোমান্টিক ছন্দ | Love Status Bangla

❤❤ভালোবাসার ছন্দ | ভালোবাসার ছন্দ রোমান্টিক | ভালোবাসার ছন্দ স্ট্যাটাস❤❤ ভালোবাসা হলো এক অন্যরকম অনুভূতির নাম, যা শুধুমাত্র কাউকে ভালবাসলেই অনুভব করা যায়। আমরা বিভিন্নভাবে

Read More »
মন খারাপের স্ট্যাটাস

মন খারাপের স্ট্যাটাস, উক্তি, ছন্দ, ক্যাপশন, কিছু কথা ও লেখা

মন খারাপের স্ট্যাটাস মন খারাপ – এই কষ্টের অনুভূতি কার না হয়? সবারই কখনো না কখনো সবারই মন খারাপ হয়। জীবনের ছোটোখাটো অঘটন থেকে শুরু

Read More »
রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের প্রেমের উক্তি

রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের প্রেমের উক্তি

রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের প্রেমের উক্তি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরকে বলা হয় বিশ্বকবি। তিনি ছিলেন একজন বিচক্ষণ ও গুনী লেখক। প্রেম চিরন্তন এবং সত্য। রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর বাঙালীর মনে প্রেমের

Read More »
ব্রেকআপ স্ট্যাটাস বাংলা

ব্রেকআপ স্ট্যাটাস বাংলা | Breakup Status Bangla

ব্রেকআপ স্ট্যাটাস বাংলা আপনি কি আপনার প্রিয়জনের সাথে সম্পর্ক থেকে বের হয়ে এসেছেন? আর সেটা আপনি কোন ব্রেকআপ স্ট্যাটাস বাংলা মাধ্যমে বোঝাতে চাচ্ছেন। তাহলে আপনি

Read More »

Leave a Comment

Table of Contents