Dreamy Media BD

কুষ্টিয়া ইসলামিক বিশ্ববিদ্যালয় এক ক্লিকে সকল তথ্য 

কুষ্টিয়া ইসলামি বিশ্ববিদ্যালয়

কুষ্টিয়া ইসলামিক বিশ্ববিদ্যালয় এর সকল তথ্য 

কুষ্টিয়া ইসলামিক বিশ্ববিদ্যালয় বাংলাদেশ স্বাধীন হওয়ার পর প্রতিষ্ঠিত প্রথম সরকারি বিশ্ববিদ্যালয়। এটি কুষ্টিয়া বিশ্ববিদ্যালয় বা ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় কুষ্টিয়া নামে অধিক পরিচিত। সকল ধর্ম বর্ণ ও দেশি-বিদেশি শিক্ষক- ছাত্রছাত্রীদের সমন্বয়ে বাংলাদেশ সংবিধানের সাথে একাত্মতা রেখে বিশ্ববিদ্যালয়ের কার্যক্রম ও পাঠ্যসূচি পরিচালিত হয়। প্রকৌশল ও প্রযুক্তি, বিজ্ঞান, ব্যবসায় প্রশাসন সামাজিক বিজ্ঞান আইন কলা ও মানবিক অনুসদের পাশাপাশি দেশে এটি প্রথম বিশ্ববিদ্যালয় যেখানে ধর্মতত্ত্ব ও ইসলামী আইন বিষয়ের উপর অনার্স ও মাস্টার্স ডিগ্রি প্রদান করে থাকে।শুরুর দিকে এটি ইসলামী সম্মেলন সংস্থার সহায়তাই পরিচালনা হলেও বর্তমানে বাংলাদেশ সরকার এটি পরিচালনা করে। এই বিশ্ববিদ্যালয়টি ১৯৮৬ সালের ২৮ জুন থেকে আটটি অনুষদের  অধীনে ৩৬ টি বিভাগ নিয়ে কার্যক্রম শুরু করে।

কুষ্টিয়া ইসলামিক বিশ্ববিদ্যালয় এক নজরে

কুষ্টিয়া ইসলামিক বিশ্ববিদ্যালয় ইতিহাস

বিশ্ববিদ্যালয় নির্মাণ পর্যায়ে একটি ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপনের উদ্যোগ অনেক পুরনো।  সর্বপ্রথম মাওলানা  মনিরুজ্জামান ইসলামাবাদী  ১৯২০ সালে একটি  মুসলিম বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠা করার জন্য ফান্ড গঠন করেন। মাওলানা শওকত আলী মুসলিম বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিত্তিপ্রস্তর ১৯৩৫ সালে  স্থাপন করেন। মাওলা বক্স কমিটি ১৯৪১ সালে “ইউনিভার্সিটি অব ইসলামিক লার্নিং” প্রতিষ্ঠা করার জন্য সুপারিশ করা হয়। 

মাওলানা মুহাম্মদ  আকরাম খাঁ ১৯৪৯ সালে ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠা করার জন্য সুপারিশ করা হয়। “ইসলামী আরবি বিশ্ববিদ্যালয়  কমিশন”গঠিত হয় ড. এস. এম. হোসাইন  এর সভাপতিত্বে ১৯৬৩ সালের ৩১ মে। বাংলাদেশ সরকার স্বাধীনতার পর ১৯৭৬ সালের ১ ডিসেম্বর ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠার জন্য ঘোষণা দেওয়া হয়। ২৭ জানুয়ারি ১৯৭৭ সালে প্রফেসর  এম. এ. বারী সভাপতি হয়ে ৭ সদস্য বিশিষ্ট  ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিকল্পনা কমিটি গঠিত হয়। ১৯৭৭ সালের ২০ অক্টোবর এই কমিটি রিপোর্ট পেশ করে।

 বিভিন্ন মুসলিম রাষ্ট্র ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠার জন্য সুপারিশ করে। এই সুপারিশের ভিত্তিতে ১৯৭৯ সালের ২২ নভেম্বর কুষ্টিয়া- ঝিনাইদহ  মহাসড়কের নিকটে শান্তিডাঙ্গা-দুলালপুর নামক জায়গায় তৎকালীন রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমান ১৭৫ একর জমিতে এই বিশ্ববিদ্যালয়ের   ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন  করেন। জাতীয় সংসদে ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন পাশ হয় ২৭ ডিসেম্বর, ১৯৮০ সালে।  ৩১ জানুয়ারি ১৯৮১ সালে প্রকল্প পরিচালক এ. এন. এম মমতাজ উদ্দিন চৌধুরী প্রথম উপাচার্য হিসেবে নিয়োগ পায় এবং দুইটি অনুষদের অধীনে চারটি বিভাগে মোট ৩০০ জন ছাত্র নিয়ে ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় তার যাত্রা শুরু করে। 

১৯৮২ সালে এরশাদ শিকদার ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় অধ্যাদেশ ১৯৮২ (৪২)- এর ৪( বি ) অনুযায়ী শান্তিডাঙ্গা- দুলালপুর এ বিশ্ববিদ্যালয় নির্মাণ কাজ বন্ধ রাখেন এবং ১৮ জুলাই ১৯৮৩ সালে ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়কে গাজীপুর বোর্ড বাজারে। এতে ঝিনাইদহ-কুষ্টিয়াতে আন্দোলন শুরু হয়। প্রবল আন্দোলনের একপর্যায়ে ৩ জানুয়ারি ১৯৮৯ সালে বাধ্য হয়ে মন্ত্রিসভায় ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় স্থানান্তরের জন্য সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়। ২৪ ফেব্রুয়ারি ১৯৯০ সালে এই বিশ্ববিদ্যালয় গাজীপুর থেকে কুষ্টিয়ায় স্থানান্তরিত হয়। সাধারণ ছাত্রদের আন্দোলনের কারনে প্রথমবারের মতো  ১৯৯০ থেকে ৯১ শিক্ষাবর্ষে ধর্ম- বর্ণ ও ছাত্রী নির্বিশেষে ভর্তির প্রচলন শুরু হয়। 

তিন বছরের পরিবর্তে চার বছরের অনার্স কোর্স চালু হয় ১৯৯৭-৯৮ শিক্ষাবর্ষে এবং গ্রেডিং পদ্ধতি চালু হয় ২০০৬-২০০৭ সালে। ১৯৯০ সালে এই বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রথম নারী শিক্ষক নিয়োগ পায় এবং পর্যায়ক্রমে বর্ণ ধর্ম জাতি নির্বিশেষে শিক্ষক নিয়োগ ও শিক্ষার্থী ভর্তি ব্যবস্থা প্রবর্তিত হয়।

কুষ্টিয়া ইসলামিক  বিশ্ববিদ্যালয়ের অবস্থান 

ইসলামি বিশ্ববিদ্যালয় পূর্বে কুষ্টিয়া-ঝিনাইদহের মাঝখানে (দুলালপুর-শান্তিডাংগা) থাকলেও এখন কুষ্টিয়া উপজেলায় রয়েছে। 

আয়তন: বিশ্ববিদ্যালয়ের আয়তন ১৭৫ একর এবং আরোও একশ একর জমি বিশ্ববিদ্যালয়ের  অধিগ্রহণের জন্য ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে।

কুষ্টিয়া ইসলামিক বিশ্ববিদ্যালয়

সংক্ষিপ্ত নাম

ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় সংক্ষিপ্ত নাম ইবি, (আরবি নাম:الجامعة الإسلامية بنغلاديش‎‎) 

—– বিশ্ববিদ্যালয় আসন সংখ্যা : (মোট আসন)

শিক্ষক ও শিক্ষার্থী সংখ্যা: শিক্ষক সংখ্যা মোট ৩৩৫ এবং শিক্ষার্থী সংখ্যা ১৮০০০ প্রায়।

—– বিশ্ববিদ্যালয় অনুষদ, বিভাগ ও আসন :

এই বিশ্ববিদ্যালয়ে ৮টি অনুষদে ৩৬টি বিভাগ রয়েছে। তবে ২০২৩ সালের প্রস্তাবনা অনুযায়ী খুব দ্রুত ৫৬টি বিভাগ চালু করবে। অনুষদ ও বিভাগগুলি হলো:

কুষ্টিয়া ইসলামিক বিশ্ববিদ্যালয়

ধর্মতত্ত্ব ও ইসলামি শিক্ষা অনুষদ

এই অনুষদে তিনটি বিভাগ রয়েছে। শিক্ষা ও পরীক্ষার মাধ্যম হচ্ছে আরবি, ইংরেজি ও বাংলা।

 

ক্রমিক নং বিভাগপ্রতিষ্ঠা বছরআসন
আল কুরআন ও ইসলামী শিক্ষা ১৯৮৬৮০
দাওয়াহ ও ইসলামী শিক্ষা১৯৮৬৮০
আল হাদীস ও ইসলামী শিক্ষা১৯৯২৮০

কুষ্টিয়া ইসলামিক বিশ্ববিদ্যালয়

প্রকৌশল ও প্রযুক্তি অনুষদ

এই অনুষদে তিনটি বিভাগ রয়েছে এবং পরীক্ষার মাধ্যম ইংরেজি।

ক্রমিক নংবিভাগপ্রতিষ্ঠা বছরআসন
তড়িৎ ও ইলেকট্রনিক কৌশল১৯৯৫৫০
কম্পিউটার বিজ্ঞান ও প্রকৌশল১৯৯৫৫০
ফলিত রসায়ন ও কেমিকৌশল১৯৯৫৫০
তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি১৯৯৮৫০
জৈবচিকিৎসা প্রকৌশল২০১৭৫০
পারমাণবিক প্রকৌশলপ্রস্তাবিত৫০
বস্তু বিজ্ঞান ও প্রকৌশলপ্রস্তাবিত৫০
বিস্ফারক প্রকৌশলপ্রস্তাবিত২০
বৈমানিক প্রকৌশলপ্রস্তাবিত৩০
১০পেট্রলিয়াম ও খনিজ সম্পদ প্রকৌশলপ্রস্তাবিত৩০

কুষ্টিয়া ইসলামিক বিশ্ববিদ্যালয়

জীববিজ্ঞান অনুষদ

ক্রমিক নংবিভাগপ্রতিষ্ঠা বছরআসন
জৈব প্রযুক্তি ও জীন প্রকৌশল১৯৯৮৫০
ফলিত পুষ্টি ওখাদ্যপ্রযুক্তি১৯৯৮৫০
ফার্মেসি২০১৭৫০
জনস্বাস্থ্যপ্রস্তাবিত৫০
অণুজীব বিজ্ঞানপ্রস্তাবিত৫০
প্রাণরসায়ন ও আণবিক জীববিজ্ঞানপ্রস্তাবিত৫০

 

কুষ্টিয়া ইসলামিক বিশ্ববিদ্যালয়

বিজ্ঞান অনুষদ

এই অনুষদে তিনটি বিভাগ রয়েছে এবং পরীক্ষার মাধ্যম ইংরেজি। 

ক্রমিক নংবিভাগপ্রতিষ্ঠা বছরআসন
গণিত২০০৭৫০
পরিসংখ্যান২০০৯৫০
ভূগোল ও পরিবেশ২০১৭৫০
শারীরিক শিক্ষা ও ক্রীড়া বিজ্ঞান২০২২২৫
পদার্থবিজ্ঞানপ্রস্তাবিত৫০
উদ্ভিদবিজ্ঞানপ্রস্তাবিত৫০
প্রাণিবিজ্ঞানপ্রস্তাবিত৫০
রসায়নপ্রস্তাবিত৫০
ভূতত্ত্ব ও খনিবিদ্যাপ্রস্তাবিত৫০
১০দুর্যোগ ব্যবস্থাপনাপ্রস্তাবিত৫০

 কুষ্টিয়া ইসলামিক বিশ্ববিদ্যালয়

ব্যবসায় প্রশাসন অনুষদ

এই অনুষদে ছয়টি বিভাগ রয়েছে ও পরীক্ষার মাধ্যম হলো ইংরেজি।

 

ক্রমিক নংবিভাগপ্রতিষ্ঠা বছরআসন
হিসাববিজ্ঞান ও তথ্যব্যবস্থা ১৯৮৬৭৫
ব্যবস্থাপনা ১৯৮৬৭৫
অর্থসংস্থান ও ব্যাংকিং ২০০৯৭৫
বিপণন২০১৫৭৫
মানব সম্পদ ও ব্যবস্থাপনা ২০১৭৭৫
পর্যটন ও আতিথেয়তা ব্যবস্থাপনা২০১৭৭৫
ব্যাংকিং ও বীমাপ্রস্তাবিত ৭৫
আন্তর্জাতিক ব্যবসাপ্রস্তাবিত৭৫
ম্যানেজমেন্ট ইনফরমেশন সিস্টেম প্রস্তাবিত৭৫

 

কুষ্টিয়া ইসলামিক বিশ্ববিদ্যালয়

কলা অনুষদ

কলা অনুষদের অধীনে ৫টি বিভাগ রয়েছে এবং বিষয়ের মাধ্যম হলো বাংলা, ইংরেজি ও আরবি।

 

ক্রমিক নংবিভাগপ্রতিষ্ঠা বছরআসন
আরবি ভাষা ও সাহিত্য১৯৯১৮০
বাংলা১৯৯১৮০
ইংরেজি ১৯৯১১০০
ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি১৯৯১৮০
চারুকলা ২০১৯৩০
ইতিহাসপ্রস্তাবিত ৮০
দর্শনপ্রস্তাবিত৮০
ভাষাবিদ্যাপ্রস্তাবিত৮০
থিয়েটার ও পরিবেশন শিল্পকলা প্রস্তাবিত৮০
১০সংগীতপ্রস্তাবিত৮০
১১বিশ্বধর্মপ্রস্তাবিত৮০

 

কুষ্টিয়া ইসলামিক বিশ্ববিদ্যালয় সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদ

এই অনুষদে সাতটি বিভাগ রয়েছে এবং পরোক্ষা মাধ্যম হচ্ছে ইংরেজি। 

ক্রমিক নংবিভাগপ্রতিষ্ঠা বছরআসন
অর্থনীতি১৯৮৯৭৫
লোকপ্রশাসন১৯৯১৭৫
রাষ্ট্রবিজ্ঞান২০১৫৭৫
লোকাচার বিদ্যা২০১৫৮০
উন্নয়ন অধ্যায়ন২০১৭৭৫
সমাজকল্যাণ২০১৭৭৫
গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা২০২১৩০
সমাজবিজ্ঞানপ্রস্তাবিত৭৫
নৃবিজ্ঞানপ্রস্তাবিত৭৫
১০আন্তর্জাতিক সম্পর্কপ্রস্তাবিত৭৫

 

কুষ্টিয়া ইসলামিক বিশ্ববিদ্যালয় আইন অনুষদ

এই অনুষদের অধীনে তিনটি বিভাগ রয়েছে এবং শিক্ষা ও পরীক্ষার মাধ্যম হচ্ছে আরবি, ইংরেজি ও বাংলা।

ক্রমিক নংবিভাগপ্রতিষ্ঠা বছরআসন
আইন১৯৯০৮০
আল ফিকহ ও আইন বিভাগ২০০৩৮০
আইন ও ভূমি ব্যবস্থাপনা২০১৭৮০

কুষ্টিয়া ইসলামিক বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তি তথ্য

ভর্তি যোগ্যতা: ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করার জন্য উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হতে হবে। যেসব যোগ্যতা থাকলে ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের A, B, C ও D ইউনিটে ভর্তি পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করতে পারবে নিম্নে উল্লেখ করা হলো:

  • কারিগরি বিভাগের শিক্ষার্থীদের জন্য এসএসসি ও এইচএসসি তে জিপিএ ৩.২৫ থাকতে হবে ফোর সাবজেক্ট সহ ৬.৭৫ থাকতে হবে।
  • বিজ্ঞান ও ব্যবসায় শিক্ষা বিভাগে শিক্ষার্থীদের জন্য ও এইচএসসিতে জিপিএ ৩.২৫ এবং ফোর সাবজেক্ট সহ ৬.৭৫ থাকতে হবে।
  • মানবিক বিভাগে শিক্ষার্থীদের জন্য এসএসসি ও এইচএসসি জিপিএ ৩.০০ থাকতে হবে এবং ফোর সাবজেক্ট সহ 3.50 থাকতে হবে।

কুষ্টিয়া ইসলামিক বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তির পরীক্ষার আবেদন প্রক্রিয়া 

ইসলামি বিশ্ববিদ্যালয়ে আবেদন করার জন্য প্রথমে বিশ্ববিদ্যালয়ের ওয়েবসাইট www.admission.iu.ac.bd এ যেতে হবে। আবেদন করার জন্য ইউনিট অনুযায়ী যে নির্দেশনা আছে তা পড়ে যে ইউনিটে আবেদন করতে চান সেখানের Apply button এ ক্লিক করবেন। এরপর এসএসসি ও এইচএসসির রোল নম্বর এবং যেই বোর্ড থেকে পাস করেছেন সেই বোর্ডে ক্লিক করতে হবে। তথ্য ঠিক আছে কিনা দেখতে হবে এবং Confirm button ক্লিক করে সবশেষে টাকা পাঠাতে হবে তবেই আবেদন প্রক্রিয়া সম্পন্ন হবে।

কুষ্টিয়া ইসলামিক বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তি পরীক্ষার মানবন্টন

 সর্বমোট ১২০ নাম্বার এর উপর ভর্তি পরীক্ষা নেওয়া হবে। যা তিন ভাগে  বিভক্ত:

  • জিপিএ এর উপর নম্বর ৪০ রয়েছে। যারা মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিকের সর্বোচ্চ জিপিএ ফাইভ পেয়েছে তারা ৪০ নম্বর পুরো পাবে। 
  • MCQ থাকবে ৬০ নম্বরের প্রতিটি প্রশ্নের উত্তর বৃত্ত ভরাটের মাধ্যমে দিতে হবে। প্রতি ভুল উত্তরের জন্য ২৫ % নম্বর কাটা যাবে। 
  • সবশেষে নৈর্ব্যক্তিক ২০ নম্বরের লিখিত পরীক্ষা দিতে হবে

কুষ্টিয়া ইসলামিক বিশ্ববিদ্যালয় প্রবেশপত্র ডাউনলোড

কুষ্টিয়া ইসলামিক বিশ্ববিদ্যালয় প্রবেশপত্র ডাউনলোড, সিট প্লান, রেজাল্ট  https://iu.ac.bd এই ওয়েবসাইট দেখুন।

কুষ্টিয়া ইসলামিক  বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তি সার্কুলার

www.iu.ac.bd/admission গিয়ে ভর্তি সার্কুলার সম্পর্কিত তথ্য পাওয়া যাবে।

কুষ্টিয়া ইসলামিক বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তি পরীক্ষার তারিখ 

https://iu.alc.bd এই ওয়েবসাইটে ভর্তি সংক্রান্ত সব তথ্য পাওয়া যাবে।

কুষ্টিয়া ইসলামিক বিশ্ববিদ্যালয় উপচার্যের তালিকা

ইসলামি বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রথম উপাচার্য ছিলেন এ এন এম মমতাজউদ্দিন চৌধুরি যিনি বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠায় প্রথম প্রকল্প পরিচালক ছিলেন এবং বর্তমান উপাচার্য শেখ আব্দুস সালাম।

 

ক্রমিক নংউপচার্যের নামদায়িত্ব গ্রহণ – দায়িত্ব হস্তান্তর
এ এন এম মমতাজ উদ্দিন চৌধুরি(০৯-০২-১৯৭৯)-()২৭-১২-১৯৮৮)
মুহাম্মদ সিরাজুল ইসলাম(২৮-১২-১৯৮৮)-(১৭-০৬-১৯৯১)
মুহাম্মদ আব্দুল হামিদ(১৮-০৬-১৯৯১)-(২১-০৩-১৯৯৫)
মুহাম্মদ ইনাম-উল হক০৯-০৫-১৯৯৫)-(০২-০৯-১৯৯৭)
কায়েস উদ্দিন(০৩-০৯-১৯৯৭)-(১৯-১০-২০০০)
মুহাম্মদ লুৎফর রহমান(২০-১০-২০০০)-(০৩-১১-২০০১)
মুহাম্মদ মুস্তাফিজুর রহমান(১০-১২-২০০১)-(০২-০৪-২০০৪)
এম রফিকুল ইসলাম(০৩-০৪-২০০৪)-(১০-০৬-২০০৬)
ফয়েজ মুহাম্মদ সিরাজুল হক(১০-০৮-২০০৬)-(০৮-০৩-২০০৯)
১০এম আলাউদ্দিন (০৯-০৩-২০০৯)-(২৭-১২-২০১২)
১১আব্দুল হাকিম সরকার(২৭-১২-২০১২)-(৩০-০৬-২০১৬)
১২মোঃ হারুন-উর-রশিদ আসকারী(২১-০৮-২০১৬)-(২০-০৮-২০২০)
১৩ শেখ আব্দুস সালাম(৩০-০৯-২০২০)-বর্তমান

 

কুষ্টিয়া ইসলামিক বিশ্ববিদ্যালয় একাডেমিক তথ্য

 ইসলামি বিশ্ববিদ্যালয়ে সেকেন্ড টাইম দেয়ার ব্যবস্থা আছে। বিশ্ববিদ্যালয়ে স্নাতক ও স্নাতকোত্তর উভয়ই করা যায়। স্নাতক ৪ বছর মেয়াদী ও স্নাতকোত্তর এক থেকে দেড় বছর মেয়াদী হয়ে থাকে। ২০১৭-২০১৮ শিক্ষাবর্ষ থেকে প্রতিটি বিভাগে সেমিস্টার পদ্ধতি চালু হয়েছে। প্রতি সেমিস্টারে সাড়ে তিন মাস করে ক্লাস হবে ও পরীক্ষার আগে ১৫ দিন পড়াশোনার জন্য সময় দেয়া হয় এবং এক মাস  পরীক্ষা শেষে ছুটি থাকে। সাপ্তাহিক ছুটি দুই দিন শনিবার ও শুক্রবার  এবং বিভিন্ন সরকারি ছুটিসহ মোট ১৮০ দিন ছুটি থাকে। এই ছুটির তালিকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ওয়েবসাইটসহ ক্যালেন্ডারে দেওয়া থাকে।

 কুষ্টিয়া ইসলামিক বিশ্ববিদ্যালয় একাডেমিক ভবন সমূহ

বিশ্ববিদ্যালয়টিতে ছয়টি একাডেমিক ভবন, দুইটি প্রশাসনিক ভবন রয়েছে। এটি একমাত্র বিশ্ববিদ্যালয় যার অভ্যন্তরে পরিপূর্ণ সজ্জিত থানা রয়েছে যার নাম ইবি থানা।

কুষ্টিয়া ইসলামিক বিশ্ববিদ্যালয় লাইব্রেরি

ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় গ্রন্থাগারের  নাম খাদেমুল হারমাইন বাদশা ফাহদ বিন আব্দুল আজিজ কেন্দ্রীয় গ্রন্থাগার। শিক্ষার্থীদের গবেষণা ও পড়াশোনা করার জন্য ১৯৯০ এর দশকে এর নির্মাণ হয়েছে। এই গ্রন্থাগারে প্রায় এক লক্ষ আট হাজার বই রয়েছে এবং কিছু বই নির্দিষ্ট গোষ্ঠীর জন্য অনলাইনে পড়ার করার সুযোগ রয়েছে। এই গ্রন্থাগার ইউ জি সি কর্তৃক ডিজিটাল লাইব্রেরির অধিভুক্তি হয়েছে।

বিশ্ববিদ্যালয়ের হল ও আসন একটি ছাত্রহল ও একটি ছাত্রী হল নির্মাণাধীন আছে।

কুষ্টিয়া ইসলামিক বিশ্ববিদ্যালয়

ছেলেদের হল

 

ক্রমিক নং হলের নামআসন
সাদ্দাম হোসেন হল৪৭৫
শহীদ জিয়াউর রহমান হল৪০০
লালন শাহ হল৩৬৬
শেখ রাসেল হল৩৬৮
জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান হল২৬০

কুষ্টিয়া ইসলামিক বিশ্ববিদ্যালয় মেয়েদের হল

 

ক্রমিক নংহলের নামআসন
খালেদা জিয়া হল৩৯৮
শেখ হাসিনা হল২৬০
বঙ্গমাতা শেখ ফফজিলাতুন্নেছা মুজিব হল৪৮০

 

কুষ্টিয়া ইসলামিক বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তির খরচ

 

ইসলামি বিশ্ববিদ্যালয়ে A ইউনিটে ১১টি বিষয়ের জন্য আবেদন ফি ৬৫০ টাকা, B ইউনিটে ১৫টি বিষয়ের জন্য আবেদন ফি ৮০০ টাকা, C ইউনিটে ৬টি বিষয়ের জন্য ৪০০ টাকা এবং একাধিক ইউনিটে উঠানোর জন্য পছন্দের ইইউনিটের সর্বোচ্চ ফি প্রদানের সাথে অতিরিক্ত ২০০ টাকা যোগ করে ফি দিতে হবে।

কুষ্টিয়া ইসলামিক বিশ্ববিদ্যালয় পড়ার খরচ

 ইসলামি বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রতি সেমিস্টার ফি বিভাগ ও ক্রেডিট ভেদে আলাদা হয়ে থাকে তবে বছরে সবমিলিয়ে ৬-১০ হাজার এর বেশি নয়। 

আবাসিক স্টুডেন্টদের খরচ কম হয়ে থাকে কিন্তু যারা বাইরে মেসে বা হোস্টেলে থাকে তাদের খরচ বেশি পড়ে। তবে সঠিক পরিমান জানতে ইসলামি বিশ্ববিদ্যালয়ের স্টুডেন্টদের সাথে যোগাযোগ করতে হবে।

কুষ্টিয়া ইসলামিক বিশ্ববিদ্যালয়   টিএসসি এবং ক্যাফেটেরিয়া

 ইবির কেন্দ্রীয় মিলনায়তন বীরশ্রেষ্ঠ হামিদুর রহমান মিলনায়তন টিএসসি হিসেবে পরিচিত। ক্যাফেটেরিয়া প্রাণবন্ত হয়ে উঠে স্টুডেন্টদের আগমনে। তারা কম খরচে এখানে খাবার খেয়ে থাকে।

কুষ্টিয়া ইসলামিক বিশ্ববিদ্যালয়ববিশ্ববিদ্যালয় অন্যান্য গুরুত্বপূর্ণ তথ্য 

কুষ্টিয়া ইসলামিক বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় মসজিদ

ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় মসজিদটি আয়তনে বাংলাদেশের তৃতীয় বৃহত্তম মসজিদ। মুসলিম  শিক্ষার্থীরা এই মসজিদে নামাজ পড়ে।  ১৯৯৪ সালে এই মসজিদের  নির্মান কাজ শুরু হয় তবে নির্মাণ কাজ শেষ হলে এই মসজিদে ১৭ হাজার মানুষ  একসাথে নামাজ পড়তে পারবে।

 

কুষ্টিয়া ইসলামিক বিশ্ববিদ্যালয় মিলনায়তন

ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় অডিটোরিয়াম বা  মিলনায়তন হল বীরশ্রেষ্ঠ হামিদুর রহমান মিলনায়তন। ২০০০ সালে এটি নির্মাণ করা হয় পূর্বে এই মিলনায়তন ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক-শিক্ষার্থী সাংস্কৃতিক কেন্দ্র নামে পরিচিত ছিল।

 

কুষ্টিয়া ইসলামিক বিশ্ববিদ্যালয় উপাচার্যের বাসভবন

বিশ্ববিদ্যালয়ের অভ্যন্তরে উপাচার্যের বাসভবন রয়েছে যেখানে তার পরিবার নিয়ে থাকতে পারে। পাশাপাশি শিক্ষক, কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের জন্য  আবাসিক কোয়ার্টার রয়েছে। 

কুষ্টিয়া ইসলামিক বিশ্ববিদ্যালয় খেলার মাঠ

খেলোয়াড়দের জন্য রয়েছে ফুটবল মাঠ, ক্রিকেট মাঠ, ইন্ডোর মাঠ, ভলিব্ল কোট, ব্যাডমিন্টন কোট, বাস্কেটবল কোট, টেনিস কোটসহ সকল খেলার মাঠ ও সরঞ্জামাদি।

কুষ্টিয়া ইসলামিক বিশ্ববিদ্যালয় শরীর চর্চা

শিক্ষার্থীদের জন্য উন্নত জিমনেসিয়াম ব্যবস্থা রয়েছে। শিক্ষার্থীদের শারীরিকভাবে সুস্থ্য ও ভালো রাখতে আরোও উন্নতমানের ব্যায়াম উপকরন আনার ব্যবস্থা করছেন কর্তৃপক্ষ।

কুষ্টিয়া ইসলামিক বিশ্ববিদ্যালয় মেডিকেল সুবিধা

বিশ্ববিদ্যালয়টিতে অত্যাধুনিক মানের তিনতলা বিশিষ্ট চিকিৎসা কেন্দ্র রয়েছে।  ওষুধ দেওয়ার  পাশাপাশি  ছোট ছোট টেস্ট করানোরও সুযোগ রয়েছে। জরুরী চিকিৎসার জন্য অ্যাম্বুলেন্স এর ব্যবস্থাও রয়েছে যা রাত দিন ২৪ ঘন্টা সার্ভিস দেওয়ার জন্য প্রস্তুত থাকে।

কুষ্টিয়া ইসলামিক বিশ্ববিদ্যালয় ভাস্কার্য

 ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় ১৯৯৬ সালে মুক্ত বাংলা ভাস্কর্য নির্মিত হয়। এই ভাস্কর্যটি বিশ্ববিদ্যালয় প্রধান ফটকের পাশে নির্মিত হয়েছে। ভাস্কর্যটির নকশা করেছিলেন চিত্রকর রশিদ আহমেদ। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান হলে সম্মুখে অবস্থিত ভাস্কর্যটির নাম মুক্তির আহ্বান  ও শাশ্বত মুজিব। এটি শেখ মজিবুর রহমানের সাত মার্চের দেয়া ভাষণ অবলম্বনে দুইটি ম্যুরাল।

কুষ্টিয়া ইসলামিক বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপত্য

 ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ে শহীদ স্মৃতিসৌধ নির্মাণ করা হয় ২০০১ সালে এবং এই স্মৃতিসৌধ টি বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান ফটকের পাশেই অবস্থিত।

 

ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের অভ্যন্তরে একটি আকর্ষণীয় ও সুন্দর লেক রয়েছে যার নাম মফিজ লেক। অনেকে এর সৌন্দর্যের কারণে ঢাকার হাতিরঝিল বলে তুলনা করেন

কুষ্টিয়া ইসলামিক বিশ্ববিদ্যালয় খেলাধুলা

 ইসলামি বিশ্ববিদ্যালয় বিভিন্ন খেলার টুর্নামেন্ট করে থাকে আন্ত:বিশ্ববিদ্যালয় ক্রিকেট,  ফুটবল, ভলিবল ইত্যাদি। 

কুষ্টিয়া ইসলামিক বিশ্ববিদ্যালয় সাংস্কৃতি অনুষ্ঠান

 ইবি যেন সংস্কৃতির মেলবন্ধন। সাহিত্য, সংগীত, নাচ, চিত্রাংকনের ইত্যাদি আয়োজন হয়ে থাকে। এছাড়াও বিভিন্ন উৎসব পহেলা বৈশাখ, পহেলা ফাল্গুন, পিঠা উৎসব ইত্যাদি। 

কুষ্টিয়া ইসলামিক বিশ্ববিদ্যালয় সন্ধ্যাকালীন কোর্স

  ইসলামি বিশ্ববিদ্যালয়ে সন্ধাকালীন মাঝখানে বন্ধ হলেও আবার চালু হয়েছে। শুক্রবার সকাল ৯ টা থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত টিচার্সরা ক্লাস নিয়ে থাকেন। সন্ধাকালীন কোর্সে অনেক বেশি খরচ হয়।

কুষ্টিয়া ইসলামিক বিশ্ববিদ্যালয় মাস্টার্স প্রোগ্রাম

মাস্টার্স প্রোগ্রাম সব বিষয়ের জন্য রয়েছে। এমএ, এমটিআইএস, এমবিএ, এলএলএম, এমএসএস, এমএসসি, এম ফার্ম, এম ইঞ্জিনিয়ার প্রোগ্রামের ব্যবস্থা রয়েছে।

ইসলামি বিশ্ববিদ্যালয় যেন পড়াশোনা, গবেষনা, খেলাধুলা,  সংস্কৃতি, বিনোদনে ভরপুর একটি বিশ্ববিদ্যালয়। বিশ্ববিদ্যালয়ের  আম বাগান, লিচু বাগান, ডায়েনা চত্বর, মুক্ত বাংলা, জিয়া মোড় ইত্যাদি সবমিলিয়ে যেন একটি পর্যটন কেন্দ্র। প্রতিবছর অনেক মানুষ এখানে ভ্রমণে আসে বিশেষ করে শীতকালে যখন অতিথি পাখি আসে তখন বিশ্ববিদ্যালয় জনসমাগমে মুখরিত থাকে।

কুষ্টিয়া ইসলামিক বিশ্ববিদ্যালয় বিশ্ববিদ্যালয় যাওয়ার উপায়

কুষ্টিয়া ইসলামি বিশ্ববিদ্যালয়ে বাসে করে যেতে পারবেন যেকোন জায়গা থেকে। আর ট্রেনে গেলে কুষ্টিয়া ট্রেন স্টেশনে নেমে অটো করে ক্যাম্পাস পর্যন্ত যেতে হবে।

কুষ্টিয়া ইসলামিক বিশ্ববিদ্যালয় বিশ্ববিদ্যালয় ঠিকানা

 

Vice-Chancellor

Islamic University, Kushtia, Bangladesh

Tel: +88 07174900 (off), +88 07174901 (Res.)

Mob: 88071–041827

E-mail: [email protected]

Fax: +8807174909

Registrar

Islamic University, Kushtia, Bangladesh

Tele: +88 071 74904 (off)

Mobile: 01712242707

Email: [email protected]

Fax: +880 71 74905

Deputy Registrar

Md. Anear Hossain

Tel: +88 071 74900-12 Ext.2206, 2297

কুষ্টিয়া ইসলামিক বিশ্ববিদ্যালয় ওয়েবসাইট 

কুষ্টিয়া ইসলামিক বিশ্ববিদ্যালয় ওয়েবসাইট https://www.iu.ac.bd/

কুষ্টিয়া ইসলামিক বিশ্ববিদ্যালয় লেখাপড়ার জন্য খুব উপযোগী একটি বিশ্ববিদ্যালয়। এটি খুলনা বিভাগের মধ্যে এটি একটি নামকরা  বিশ্ববিদ্যালয়। বাংলাদেশের বিভিন্ন এলাকা থেকে এ বিশ্ববিদ্যালয়ে লেখাপড়ার জন্য এসে থাকে। কুষ্টিয়া ইসলামিক ইউনিভার্সিটির পরিবেশ খুবই ভালো যে কারণে এখানে লেখাপড়া করে 

Also read: শেখ হাসিনা বিশ্ববিদ্যালয় 

Related Post

খুশির স্ট্যাটাস

200+ স্টাইলিশ খুশির স্ট্যাটাস | হাসি নিয়ে ক্যাপশন

খুশির স্ট্যাটাস | হাসি নিয়ে ক্যাপশন জীবনের সুন্দর খুশির মুহূর্ত আমরা সবাই বাঁধাই করে রাখতে চাই। আর এই খুশির মুহূর্তকে ধরে রাখার সবচেয়ে সহজ উপায়

Read More »
❤love status bangla | ভালোবাসার ছন্দ | রোমান্টিক ছন্দ | প্রেম ছন্দ স্ট্যাটাস❤

স্টাইলিশ ভালোবাসার ছন্দ | রোমান্টিক ছন্দ | Love Status Bangla

❤❤ভালোবাসার ছন্দ | ভালোবাসার ছন্দ রোমান্টিক | ভালোবাসার ছন্দ স্ট্যাটাস❤❤ ভালোবাসা হলো এক অন্যরকম অনুভূতির নাম, যা শুধুমাত্র কাউকে ভালবাসলেই অনুভব করা যায়। আমরা বিভিন্নভাবে

Read More »
মন খারাপের স্ট্যাটাস

মন খারাপের স্ট্যাটাস, উক্তি, ছন্দ, ক্যাপশন, কিছু কথা ও লেখা

মন খারাপের স্ট্যাটাস মন খারাপ – এই কষ্টের অনুভূতি কার না হয়? সবারই কখনো না কখনো সবারই মন খারাপ হয়। জীবনের ছোটোখাটো অঘটন থেকে শুরু

Read More »
রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের প্রেমের উক্তি

রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের প্রেমের উক্তি

রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের প্রেমের উক্তি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরকে বলা হয় বিশ্বকবি। তিনি ছিলেন একজন বিচক্ষণ ও গুনী লেখক। প্রেম চিরন্তন এবং সত্য। রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর বাঙালীর মনে প্রেমের

Read More »
ব্রেকআপ স্ট্যাটাস বাংলা

ব্রেকআপ স্ট্যাটাস বাংলা | Breakup Status Bangla

ব্রেকআপ স্ট্যাটাস বাংলা আপনি কি আপনার প্রিয়জনের সাথে সম্পর্ক থেকে বের হয়ে এসেছেন? আর সেটা আপনি কোন ব্রেকআপ স্ট্যাটাস বাংলা মাধ্যমে বোঝাতে চাচ্ছেন। তাহলে আপনি

Read More »

Leave a Comment

Table of Contents